কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের ডাকে দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা বিজেপি নেতা অর্জুন সিং


শনিবার,৩০/০৪/২০২২
296

কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের ডাকে দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা বিজেপি নেতা অর্জুন সিং। কলকাতা বিমানবন্দরে এসে তিনি জানান- জুট ইস্যুতে আমি দুবার চিঠি দিয়েছিলাম পীযূষ গোয়েল মহাশয় কে দুপুরে হঠাৎই ফোন আছে যে আপনি চলে আসুন আর্জেন্টলি আপনার সঙ্গে এই ইস্যুতে কথা আছে। রাত 10 টায় মিটিং আছে দেখা যাক মিটিংয়ে কি হচ্ছে।

গতকাল মমতা বন্দোপাধ্যায় সহ আরো চারজন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এই নিয়ে চিঠি দিয়েছিল, তারপরে জল্পনা বাড়ছে এই প্রসঙ্গে বলেন – কে কি ভাবছে আমি জানিনা কিন্তু আমি একটা জিনিষ স্পষ্ট জানি জুট মিলের আমার মা-বাবা। শ্রমিকদের জন্য আজকে আমি একটা কাউন্সিলর কে কে এমপি হয়েছি। এই লড়াই টা হাতে নিয়ে গেছি আমি এই লড়াইয়ের কিছু একটা হেস্তনেস্ত হবে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যখন ডেকেছে তখন কিছু একটা রাস্তা বের করার জন্য ডেকেছে। কিন্তু যে রাস্তায় বেরোবে সবটাই শ্রমিক চাষী ইন্ডাস্ট্রির পক্ষেই হাওয়া দরকার। শ্রমিক চাষী ইন্ডাস্ট্রিজ ভার্সেস x- টাইলস মিনিস্ট্রি যে জুট কমিশনার আছে তাদের মধ্যে। এই লড়াই কোন শ্রমিক আর মালিকের লড়াই নেই, এই লড়াই একটা অদ্ভুত লড়াই আছে। এর উপর যদি এক্সট্রাইলস মিনিস্ট্রি না নজর দেয় ব্যাপক ক্ষতি হবে বাংলার এই ইন্ডাস্ট্রিতে।

জুট মিলের সামনে তৃণমূলের অবস্থান বিক্ষোভ চলছে আপনি কি সাপোর্ট করবেন। এই প্রসঙ্গে বলেন- আমি তো এই আন্দোলনের সঙ্গে আছি, আন্দোলনে সামিল হবে, যারা আন্দোলনের সঙ্গে থাকবে সবাই কে আমি সাধুবাদ জানাবো। পাঁচ খানা মুখ্যমন্ত্রীকে ও বলেছি যে আপনাদের ওখানে পাট চাষ হয় জুট মিল আছে। পীযূষ জির সঙ্গে দেখা করবেন কি দাবি জানাবে- আমার দাবিটা জানাবো হাইক্যাপ যে ফিক্সড স্টেশন টা আছে। জুটের জন্য এই ফিক্সড স্টেশন টা অন্যায় আছে। এই ফিক্সড স্টেশন টা করা দরকার নেই।

অর্জুন সিং এর চিঠি করা নিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেছেন এই জুট থেকে অনেকে কামিয়ে গেছে, নাম না করে অর্জুন সিং এর দিকে আঙুল- দিলীপ ঘোষ কি বলেছেন আমি জানিনা দিলীপ দার কোন কথার উত্তর দেওয়ার ও আমার দরকার নেই। দিলীপ দা যদি এই কথাটা বলে থাকেন তাহলে ভুল করেছেন। আরে আমার জন্ম হয়েছে জুটমিলে। চাকরি করেছি। যদি চাকরিটা কে কামিয়ে নেয়া বলা যায় এটা ওনার ব্যর্থতা আছে উনি কি বলছেন। আমার এই নিয়ে উত্তর দেয়ার কোন দরকার নেই। আজকের বৈঠকে যদি ফলপ্রসূ হয় জুট মিলের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ তুলে নেবেন- নানা আমার সমর্থন তুলে নেওয়া না নেওয়ার ব্যাপার নেই। যদি কেন্দ্রীয় সরকারের এক্সট্রেল্ মিনিস্ট্রি মেনে নেয় তাহলে তো আন্দোলনের কোন জায়গায় থাকবে না। সবার খুশির ব্যাপার, এই আন্দোলনটা খুশির আন্দোলন হয়ে যাবে।

Loading...
https://www.banglaexpress.in/ Ocean code:

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট