অশনি ধীরে ধীরে শক্তি হারিয়ে দুর্বল


মঙ্গলবার,১০/০৫/২০২২
537

প্রবল সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড় অশনি ধীরে ধীরে শক্তি হারিয়ে দুর্বল হয়ে পড়ায় এরাজ্যে এর প্রভাব সম্ভাবনা ক্রমশ ক্ষীণ হয়ে আসছে। এটি এখন পশ্চিম-মধ্য ও সংলগ্ন দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের ওপর অবস্থান করছে। ৬ ঘন্টায় ৭ কিলোমিটার গতিবেগে অগ্রসর হয়ে গতকাল রাত আড়াইটে নাগাদ এই ঝড় অন্ধ্রপ্রদেশের কাকিনাড়ার ৩৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্ব, বিশাখাপত্তণমের ৩৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ পূর্ব, গোপালপুরের ৫১০ কিলোমিটার দক্ষিণ এবং পুরীর ৫৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিম দূরত্বে ছিল। এটি আরও উত্তর পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে আজ সন্ধ্যা নাগাদ উত্তর অন্ধ্র ও সংলগ্ন ওড়িশা উপকূলের অদূরে পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগরে পৌঁছবে। তারপর সেটি উত্তর-উত্তর-পূর্ব দিকে বাঁক নিয়ে উত্তর অন্ধ্র ও ওড়িশা উপকূলের কাছে বঙ্গোপসাগরের উত্তর পশ্চিম দিকে অগ্রসর হবে। পরবর্তী ২৪ ঘন্টায় সেটি আরো শক্তি হারিয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে বলে আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে।এদিকে, অশনির প্রভাবে আজ কলকাতা, হাওড়া, দুই ২৪ পরগণা, পূর্ব মেদিনীপুর ও নদীয়া জেলায় হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা। উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে ঝোড়ো হাওয়াও বয়ে যেতে পারে।মৎস্যজীবীদের আজ থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সমুদ্রে পাড়ি দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।এছাড়া উপকূলবর্তী এলাকায় আজ থেকে ১৩ই মে মাছ ধরা ও পর্যটকদের গতিবিধি নিয়ন্ত্রণ করতে বলা হয়েছে।অন্যদিকে অশনির প্রভাবে কলকাতা, হাওড়া, দুই ২৪ পরগণা ও পূর্ব মেদিনীপুর এবং নদীয়ায় গতকাল বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হয়। বেশ কয়েক পশলা ভারি বৃষ্টিতে কলকাতা ও দুই ২৪ পরগণায় স্বাভাবিক জনজীবন ব্যাহত হয়। নিচু এলাকাগুলিতে জলও জমে যায়।

Loading...
https://www.banglaexpress.in/ Ocean code:

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট