গোটা স্টেজ ৮০ ফুট লম্বা চওড়া ৪৬ ফুট তিনটে স্টেজ অন্যবারের তুলনায় স্টেজ বড়। প্রায় ৫০০ জন বসার ব্যবস্থা।


বুধবার,২০/০৭/২০২২
161

এসপ্ল্যানেড ও পার্ক স্ট্রিট চত্বরে থাকছে প্রায় ১৫’টি জায়েন্ট স্ক্রিন। এছাড়া শহরের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় থাকছে জায়েন্ট স্ক্রিনে দেখানোর সুবিধা। মিছিল হবে কেন্দ্রীয় ভাবে –
হাওড়া স্টেশন, শিয়ালদহ স্টেশন, শ্যামবাজার, সল্টলেক সেন্ট্রাল পার্ক, হাজরা থেকে। AITC অফিসিয়াল ফেসবুক, ট্যুইটার,ইন্সটাগ্রাম পেজ থেকে লাইভ সম্প্রচার দেখানো হবে। এছাড়া মমতা বন্দোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দোপাধ্যায় পেজ থেকেও লাইভ হবে। স্টেজে সাংসদ, বিধায়ক, সংগঠনের শীর্ষ নেতা, বিশিষ্টজন থাকবে। প্রায় ১০০০ স্বেচ্ছাসেবক থাকবেন। মাস্ক ও স্যানিটাইজার নিয়ে। এছাড়া বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে দেওয়া হবে মাস্ক, স্যানিটাইজার। দু’বছর পর ধর্মতলায় শহীদ দিবস পালন করতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। কিছু দিন আগেই নিরাপত্তা বেষ্টনী পাড় করে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে ঢুকে পড়ে এক ব্যক্তি । পরিস্থিতি বিবেচনা করে এবার আরও কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হচ্ছে, যাতে মুখ্যমন্ত্রীর ধারে কাছে কেউ পৌঁছাতে না পারে , ভিক্টারিয়া হাউসের সামনে হচ্ছে শহীদ দিবসের মন্চ। সেই মূল মন্চের নিরাপত্তা ভাগ করা হয়েছে তিনটি জোনে

জোন ১
এরমধ্যেই আবার প্রথম জোনকে তিনটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে…

১) Dais and Victoria House (Collapsible Gate).

২) মূল মন্চের সামনে ডি জোনের ভিতরের অংশ
৩) মূল মন্চের সামনে ডি জোনের বাইরের অংশ ….

এই প্রথম জোনের নিরাপত্তার দায়িত্বে ১ জন ডিসি, ৩ জন এসি, ৫ ইনস্পেক্টর, ৫জন এসআই/ সার্জেন্ট, ৩০ জন (আনআর্মড)পুলিশ, ৯৫ জন সাদা পোশাকে পুলিস ( মহিলা ও পুরুষ), ৪০ জন RAF (মহিলা ও পুরুষ)

মন্চের সামনে ডি জোনের বাইরে থাকবে ২০ জনের উইনার্স টিম

জোন ২
Mancha র পিছন দিক ও সংলগ্ন এলাকা …
এই জোনকে সাতটি ভাগে ভাগ করে নজরদারি চলবে। তার মধ্যে পাঁচটি জায়গায় ছাদ থেকে চলবে নজরদারি ।
জোন ২ এক নিরাপত্তার দায়িত্বে ১ জন ডিসি, ৩ জন এসি, ৬জন ইনস্পেক্টর , ১২জন এসআই, ১৭ জন ASI, ৬৫ জন আনআর্মড পুলিশ, ১০ জন সাদা পোশাকে পুলিশ

জোন ৩

ডি জোনের বাইরে চৌরঙ্গী স্কোয়ার ও স্টেটসম্যন হাউস সংলগ্ন অংশ

এই জোন পাঁচটা ভাগে ভাগ করা থাকছে পুলিশ
নিরাপত্তার দায়িত্বে ১ জন DC, 5 জন AC, 7 জন ইনস্পেক্টর, ১৮ জন SI, 19 জন ASI, 104 জন (আনআর্মড), ২ জন সাদা পোশাক

এছাড়া ২১ জুলাইকে কেন্দ্র করে গোটা শহর ১০ জোনে ভাগ করে করা হয়েছে পুলিশি বন্দোবস্ত

প্রত্যেক জোনে ৫/৭ করে পিকেট থাকবে
প্রত্যেক জোনের কোথাও একজন তো কোথাও দু’জন ডিসি। যাদের অধীনে থাকবে অন্তত ৭০/৮০ জন পুলিশ

হাইরাইজ বিল্ডিং থেকে নজরদারি, মেট্রো রেল অতিরিক্ত পুলিশ, চলবে ড্রোনে নজরদারি

মন্চকে কেন্দ্র করে ৮টি জায়গার ছাদে থেকে ভিডিওগ্রাফি করা হবে

থাকবে অ্যান্টি সাবোটাজ টিম

দু’বছর পর শহীদ দিবস পালন হচ্ছে । ফলে অনেক বেশি ভিড হওয়ার সম্ভাবনা। সেইসঙ্গে এবার বাড়তি চাপ টানা ব্রিজ বন্ধ থাকায় ।
অন্য দিকে জেলা থেকে প্রচুর গাডি আসার সম্ভবনা।
ফলে তিনটে জোনে ভাগ করে করা হচ্ছে পার্কিংযের ব্যবস্থা।
A জোনে থাকতে ৭টি পার্কিং প্লেস
B জোনে ১৫ টি পার্কিং প্লেস
C জোনে ১৯ টি পার্কিং প্লেস

গাডি চলাচল স্বাভাবিক রাখতে ডিসি ট্রাফিকের নেতৃত্বে বুধবার রাত ৯টা থেকে ডিউটি মোতায়েন থাকতে বলা হয়েছে। যাতে গাডি গুলো নির্দিষ্ট জায়গায় পার্কিং করা যায়

শহরের ১৯টি গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় পিকেট, ১৫ টি জায়গায় থাকবে অ্যাম্বুল্যান্স

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট