তুলকালাম বিধানসভা, সম্মুখ সমরে তৃণমূল-বিজেপি


শনিবার,০২/১২/২০২৩
632

বিধানসভায় চলছে শীতকালীন অধিবেশন। আর এই শীতকালীন অধিবেশনে তৃণমূল কংগ্রেসের অবস্থান কর্মসূচি তিন দিনে পড়ল। মঙ্গলবার তৃণমূল কংগ্রেসের ধরনা অবস্থান চলাকালীন পাল্টা অবস্থান শুরু করেছিল বিজেপি। বুধবার সেই একই পথে হাঁটল গেরুয়া শিবির। ডক্টর বি আর আম্বেদকরের মূর্তির পাদদেশে যখন তৃণমূল কেন্দ্রীয় বঞ্চনার প্রতিবাদ জানাচ্ছে তখন হঠাৎ করে বিধানসভার লবির বাইরে গেটের মুখে ধরনা অবস্থানে বসে বিজেপি বিধায়করা। নেতৃত্বে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। একদিকে তৃণমূলের ধরনা থেকে আওয়াজ ওঠে বিজেপির উদ্দেশ্যে। আওয়াজ উঠে চোর চোর বলে। থালা বাজানো কাঁসর বাজানো চলে আন্দোলনকারীদের মধ্য থেকে। আবার বিজেপি ধরনা থেকেও সেই একইভাবে চোর চোর স্লোগান বিপক্ষের দিকে। সেখানেও সমানতালে চলে থালা বাজানো বাঁশি সহ আরো অনেক কিছু। একটা ঘোষিত কর্মসূচি চলাকালীন বিজেপির এই কর্মসূচি প্রশ্নের মুখে পড়েছে। তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ বিজেপি বিশৃঙ্খলা ও উস্কানি ছড়ানো লক্ষ্য নিয়ে এই কান্ড করছে। এদিনও যখন তৃণমূলের ধারণা শেষে জাতীয় সংগীত পরিবেশিত হয় সেই সময় বিজেপির ধরনা থেকে পাল্টা স্লোগান চলতে থাকে। তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ব্রাত্য বসু ফিরহাদ হাকিম অরূপ বিশ্বাস সহ অন্যান্যরা অভিযোগ করে বলেন বিজেপি বিধানসভার গরিমা নষ্ট করছে। উস্কানি ছড়িয়ে বিধানসভার নিয়ম-কানুন ভাঙছে।

এদিকে বুধবার বিধানসভা চত্বরে দেখা যায় পুলিশকর্তাদের। আগেই বিধানসভার তৃণমূল পরিষদীয় দল হেয়ার স্ট্রিট থানায় বিজেপির ১১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। তৃণমূলের ধরনা অবস্থানে জাতীয় সংগীত পরিবেশন এর সময় বিজেপির বিশৃঙ্খলা নিয়ে অভিযোগ দায়ের হয়। এদিন অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে। যেভাবে শাসক ও বিরোধী শিবিরের আন্দোলন ঘিরে বিধানসভা উত্তপ্ত হয়ে উঠছে সেই ঘটনার নিন্দা করেন অধ্যক্ষ। উভয় পক্ষকেই সংযত হওয়ার বার্তা দিয়েছেন তিনি। বলেছেন বিধানসভার গড়িমা যাতে নষ্ট না হয় তার সকলকেই দেখতে হবে। এইভাবে বিধানসভার চত্বরে উশৃংখল পরিস্থিতি কাম্য নয়।

Loading...
https://www.banglaexpress.in/ Ocean code:

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট