আমরা সেই তিমিরেই


রবিবার,০১/০৩/২০১৫
471

অঞ্জন চট্টোপাধ্যায়ঃ কলকাতার ময়দানে গেলে মনটা হুহু করে ওঠে। ইডেনের বিপরীতে বেঙ্গল কবাডি অ্যাসোসিয়েশন, খুবই খারাপ অবস্থা কে কবাডি খেলোয়াড় কে কোচ বোঝার উপায় নেই। আর একটু হেটে গেলে ভলিবল তাবু কয়েকজন ভলিবল খেলছেন। এনারা মিডিয়ার সাথে কথা বলতে চায় না কারণ জানা গেল না। অ্যাথলেটিক -এর অবস্থা আরও খারাপ কর্তাদের অনেকে কষ্ট করে সব জিনিস জোগাড় করছেন। সৌরভ গাঙ্গুলী সহ দোলা গাঙ্গুলী সবাইকে সম্মান দেওয়া হচ্ছে অথচ ৪২ টি অলিম্পিক সস্থার একটিকেও সাহায্যে দেওয়া হল না। যে খেলোয়াড়’রা সম্মান পাচ্ছেন তাঁদের অনেকে বলছেন সরকার ভালো কাজ করছে ক্রীড়ায়। রাজনীতির এটাও একটা অঙ্গ খেলার উন্নয়ণ না করে খেলোয়াড়দের পকেট ভরাও। অলিম্পিক সংস্থা আগে নানা কর্মসূচি নিত, রাজনীতির পরিবেশ দেখে পিছিয়ে যাচ্ছে। এ আমার লোক একে সুযোগ দাও। বাঙ্গালির সেরা খেলা ফুটবল – তিন প্রধানের অবস্থা খারাপ আর্থিক কেলেঙ্কারীর জন্য। আইএসএল নিয়ে এখন বাঙ্গালি নতুন করে স্বপ্ন দেখছে। সিএবি এদিক থেকে আধুনিক ঝকঝকে ক্লাব হাউস, বিদেশী গাড়ী। কিন্তু আসল জায়গায় ক্রিকেটে -এর অবস্থা শূন্য। সৌরভের পর নিয়মিত বাঙ্গালি খেলোয়াড় নেই। ভিনরাজ্যের থেকে খেলোয়াড় নিয়ে এসে মাতামাতি চলছে। ব্যাঙের ছাতার মতো ক্রিকেট ক্লাব, অথচ ভাল ক্রিকেটার বেরনোর রাস্তা কারোর জানা নেই। সেই কারণে শাহরুখের নাইট বাহিনী এখন সিএবি-র নয়নের মণি। আমরা সচিন বিদায়ে কাদি, মেসির ছোয়া আমাদের মুগ্ধ করে, বোল্টের গতি আমাদের রাঙিয়ে দেয়। সব জায়গায় আমাদের ক্রীড়ায় গতি থমকে গেছে। কে এসে হাল ধরবে বা চালাবে সেটাই ভবিষ্যত বলবে।

Loading...
https://www.banglaexpress.in/ Ocean code:

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট