কবি কুমুদরঞ্জন মল্লিকের জন্মস্থানে কুমুদ মেলা হল


বৃহস্পতিবার,০৫/০৩/২০১৫
743

মোল্লা জসিমউদ্দিন, মঙ্গলকোট, বর্ধমানঃ  পল্লি ও প্রকৃতিপ্রেমীক কবি কুমুদরঞ্জন মল্লিক তাঁর বসতবাড়ি মঙ্গলকোটে কোগ্রামে ‘ মধুকর ‘ ভিটা উপলক্ষে অজয় ও কুনুর নদীর ভাঙন সম্পর্কে একদা লিখেছিলেন। বিগত চার বছর ধরে কবির জন্মদিন পালনে কুমুদ মেলা হয়ে আসছে। মঙ্গলবার কোগ্রামে কবির আমবাগান চত্বরে ১৩৩ তম জন্মদিবস পালন করল কুমুদ মেলা কমিটি। বর্ধমানে বিভিন্ন প্রান্ত সহ বীরভূম-বাঁকুড়া জেলা থেকে দুই শতাধিক কবি-সাহিত্যিক-সাংবাদিক যোগ দিয়েছিলেন এই সাহিত্যাসরে । কবি প্রণাম, উদ্বোধনী সঙ্গীত, অতিথিবরণ, গুণীজন সংবর্ধনা, শ্রূতিনাট্য, পত্রিকা প্রকাশ প্রভৃতি অনুষ্ঠিত হয় সারাদিনব্যাপী।সমাজের বিভিন্ন স্তরের ব্যক্তিত্বদের সংবর্ধনা জানানো হয়। মঙ্গলকোটে চারজন, কাটোয়ার দু’জন, ভাতারের দু’জন, নানুরের দু’জন, দুর্গাপুরের একজন এবং বাঁকুড়া জেলার একজন সংবর্ধিত হন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন বিচারক মহম্মদ নুরল হুদা মোল্লা, প্রাক্তন ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট সেখ মহম্মদ ইব্রাহিম, বর্ধমান জেলা পরিষদের সদস্য বিকাশ চৌধুরী প্রমুখ। জঙ্গলমহল এলাকায় তামাক বিরোধী আন্দোলনের জন্য সারেঙ্গার বাসিন্দা সাধন মণ্ডলকে ‘ বাঁকুড়া রত্ন ‘, দীর্ঘ ত্রিশ বছর মফঃস্বলে চিত্র – সাংবাদিকতা করার জন্য ‘ সমীরণরত্ন ‘ দেওয়া হল অসিত বন্দ্যোপাধ্যায়কে। পল্লি কবি কুমুদরঞ্জন মল্লিকের বাড়ির পাশে কুনুর নদীর নামকরণে কুনুর কথা পত্রিকা প্রকাশে দীর্ঘ বারো বছর ধরে রাখার জন্য চুনিলাল মুখোপাধ্যায়কে ‘ কুমুদরত্ন ‘ দেওয়া হয়। এছাড়া তারকেশ্বর চট্টরাজ, অসিকার রহমান, তাপস মণ্ডল, সৈয়দ আজহার আলি, শিবশংকর ঘোষ, মহম্মদ হাসিব, লক্ষীনারায়ণ রায়, সেখ মহম্মদ ইব্রাহিম এবং হারাধন মহান্তকে ‘ বিশেষরত্ন ‘ দেওয়া হয় কুমুদ মেলা কমিটির পক্ষে। আহ্বায়ক মোল্লা জসিমউদ্দিন কবির বাড়িকে বর্তমান ভাঙনের হাত থেকে বাঁচাবার জন্য সরকারি উদ্যোগ নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট