ব্লক প্রশাসনের উদ্যোগে মিটে গেল ডাইনি সমস্যা


সোমবার,০৯/০৩/২০১৫
254

সাধন মণ্ডল, রাইপুর, বাঁকুড়াঃ গত কয়েকদিন ধরে জঙ্গলমহলের রাইপুরে ব্লকের শ্যামসুন্দরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সমরপচা গ্রামের আদিবাসী বৃদ্ধা মালতী টুডু’র উপর গ্রামের মাঝি মোড়ল -এর সাব্যস্থ্যকরা ‘ ডাইনি ‘ সমস্যা মিটে গেল। উল্লেখ্য মালতী টুডু হলেন শ্যামসুন্দরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান দিলীপ টুডু’র মা। গ্রামের এক কিশোরী দীর্ঘদিন রোগভোগ করার পর মারা যায় এবং গ্রামের বেশ কিছু শিশুর শরীর অসুস্থতার কারণে গ্রামের আদিবাসী মাঝি সমাজ মিটিং -এর বসে সেখানে মোড়ল হিকিম টুডু স্থানীয় জানগুরার সাহায্যে ‘ ডাইনি ‘ সাব্যস্থ করে মালতী টুডুকে। এরপরেই গ্রামে গুঞ্জন শুরু হয়। প্রধান দিলীপ টুডু পুলিশ প্রশাসন ও বিডিও-এর কাছে গ্রামের পাঁচ জনের নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। দিলীপ টুডুর অভিযোগ আমার মা কে ডাইনি বলা হচ্ছে এর বিচার চাই। এই খবর আমাদের খবরইন্ডিয়াঅনলাইন পত্রিকায় প্রচারিত হওয়ার পর ব্লক প্রশাসন, পুলিশ ও ভারতীয় বিঙ্গান ও যুক্তিবাদী সমিতির বাঁকুড়া শাখা নড়েচড়ে বসে। গতকাল সকালে যুক্তিবাদী সমিতির চার জনের একটি দল সমরপচা গ্রামে গিয়ে উভয় পক্ষের সাথে পৃথক পৃথক ভাবে আলোচনায় বসে। এরপর দুপুরে রাইপুরে -এর বিডিও দীপঙ্কর দাস ও বারিকূল থানায় ওসি কয়েকজন পুলিশ কর্মী নিয়ে গ্রামে আসেন এবং উভয় পক্ষকে নিয়ে বৈঠকে বসেন। দীর্ঘ আলোচনায় পর উভয়ের সহমতে বিষয়টি মিটিয়ে ফেলা হয়। গ্রামের মানুষজন মাঝি মোড়ল ও অভিযুক্ত মালতী টুডুর পরিবারে-এ বিষয়ে একটি মুচলেখায় সাক্ষর করে এবং সকলের সাথে জড়িয়ে মিলমিশ হয়। বিডিও বলেন, ‘ এই রকম সমস্যা যাতে আর না হয় তার জন্য আদিবাসী অধ্যুষিত গ্রামগুলোতে বিশেষ সচেতনতা শিবির করা হবে।’

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট