পুরভোটের আগে বর্ধমানে হত সিপিএম কর্মী


শুক্রবার,২৭/০৩/২০১৫
621

মোল্লা জসিমউদ্দিন, মঙ্গলকোট, বর্ধমানঃ চলতি পুর নির্বাচনে গ্রামীণ বর্ধমানের কাটোয়া, দাঁইহাট, কালনা এবং মেমারী পুরসভার নির্বাচনে রয়েছে। ইতিমধ্যেই প্রায় সবকটি আসনে বাম প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। আলু চাষীদের নিয়ে মিছিল-পথ অবরোধ চালাচ্ছে সিপিএম জেলা নেতৃত্ব। অর্থাৎ কাটোয়া পুরসভা টি বাদ দিলে বাকী তিনটি পুরসভায় তৃণমূলের সম্মুখ সমরে সিপিএম। গত ভোটে ফলাফল অনুযায়ী দাঁইহাট এবং কালনায় এক তৃতীয়াংশ আসনে জেতে বামফ্রন্ট। ২০১১ সালে সারা বাংলায় বামফ্রন্টের বিপর্যয় ঘটলেও বর্ধমানে ২৫ টির মধ্যে ৯টি জেতে। যদিও গলসির বিধায়ক দল বদল করায় উপনির্বাচনে জয় পায় তৃণমূল। সম্প্রতি লোকাল কমিটি, জোনাল কমিটি এবং জেলা কমিটি সম্বেলনের মাধ্যমে গঠন হয়। চরম দুর্দিনেও হাজারের কাছাকাছি সদস্যদের পদ বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে খারিজ করে সিপিএম। আমন ধানে সরকারী মূল্য না পাওয়া, বোরো চাষে ডিভিসির জল নিয়ে সরকারের কৃপনতা, সর্বশেষ আলু নিয়ে চাষীদের ধারাবাহিক আত্নহত্যা বিষয়গুলি সিপিএম কে কৃষক দরদী আন্দোলনের পথকে প্রশস্থ করে তুলছে। গ্রামীণ বর্ধমানের একাংশে ভোট থাকায় জনসমর্থনের ভিত মজবুত করা নিয়ে বর্তমান শাসক দল এবং প্রাক্তন শাসক দলের লড়াই তুঙ্গে। আত্নঘাতী আলু চাষীদের তালিকায় প্রথম নামটি ভাতারের ছাতিম ভাঙ্গার গুড্ডু মুমুর। এই মৃত্যুর ঘটনাটি আদিবাসী সমাজে ভাতার এলাকায় প্রভাব পড়ে। গত রবিবার সন্ধে বেলায় শক্তি প্রদর্শনের জন্য বনপাশ অঞ্চল তৃণমূল মিছির করে থাকে। অভিযোগ মিছিল থেকে বোমাবাজী এবং হাসুয়া-টাঙ্গি করে সিপিএম অধ্যুষিত আদিবাসী পাড়ায় হামলা চালনা হয়। উভয় দলের পাঁচ-ছয়  জন গুরুতর জখম হন। রবিবার রাতেই তাদেরকে বর্ধমান সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আনা হয়। সোমবার ভোরের দিকে ধাদলসা গ্রামের মঙ্গল হেমব্রম ( ৪২ ) মারা যান। তিনি সিপিএম সমর্থক ছিলেন বলে জানা গেছে। ভাতার থানার পুলিশ এই ঘটনায় ১১ জন তৃণমূল কর্মীকে আটক রেখেছে। সোমবার দুপুরে গরুর গাড়ী গুসকারা -বর্ধমান সড়ক রুটের কামারপাড়া -তে রেখে ঘন্টা খানেক পথ অবরোধ চালায় আদিবাসীরা।

Loading...
https://www.banglaexpress.in/ Ocean code:

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট