খুনে অভিযুক্তকে কাটোয়া পুরসভার প্রার্থী করল তৃণমূল


সোমবার,৩০/০৩/২০১৫
361

মোল্লা জসিমউদ্দিন, বর্ধমানঃ চলতি পুরসভার মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন ছিল বুধবার। এদিন বর্ধমান জেলার কাটোয়া – দাঁইহাট – কালনা এবং মেমারী পুর নির্বাচনে রাজনৈতিক দলগুলির প্রার্থীরা মনোনয়ন পেশ করেন। মেমারীর – ১৬ টি, কালনার ১৮ টি, দাঁইহাটের ১৪ টি এবং কাটোয়ার ২০ টি ওয়ার্ড রয়েছে। এই চারটি পুরসভার মধ্যে কাটোয়ায় একক ভাবে কংগ্রেস, দাঁইহাটে তৃণমূলকে জোট করে কংগ্রেস, কালনায় কংগ্রেস – তৃণমূল জোট, মেমারীতে একক ভাবে তৃণমূল গত ২০১০ সালের নির্বাচনে জেতে। পরবর্তী পর্যায়ে কালনার পাঁচ জন এবং মেমারীর চারজন কংগ্রেস কাউন্সিলার তৃণমূলে যোগদান করেন। এবারের নির্বাচনে কংগ্রেসের সাথে তৃণমূলের জোট হচ্ছে না। বিক্ষুব্ধ তৃণমূলীদের বিজেপি প্রার্থী করায় চতুমুখি লড়ায়ের প্রবল সম্ভবনা এই চারটি পুরসভাতে। ১৯৯৫ সাল থেকে কাটোয়া পুরসভা দখলে রেখেছে কংগ্রেস। পুরসভার পাশাপাশি কাটোয়া কলেজ এবং বিধানসভার আসনটি মূলত ব্যক্তি রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়ের দৌলতে জিতে কংগ্রেস। উপপুরপিতা অমর রায় তৃণমূলে যোগ দেওয়ায় শাসক দলের শক্তি বৃদ্ধি ঘটে। তবে অতি সম্প্রতি কাটোয়া কলেজের ছাত্র সংসদ নির্বাচনে ৪২ – ০ ব্যবধানে কংগ্রেসকে দুশ্চিন্তামুক্ত রাখে। যদিও বিজেপি লোকসভা ভোটে কাটোয়া পুরসভা এলাকায় পাঁচ – ছয়টি ওয়াডে এগিয়ে ছিল। এমতাবস্থায় কাটোয়ার কুখ্যাত দুষ্কৃতি হিসাবে পরিচিত জঙ্গল সেখ এদিন কাটোয়া পুরনির্বাচনে ১৩ নং ওয়াড থেকে তৃণমূলের হয়ে মনোনয়ন পেশ করে। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে দশ থেকে বারোটি খুনে মূল অভিযুক্ত হিসাবে জঙ্গল সেখের নাম রয়েছে। অসংখ্য ফৌজদারী মামলা চলছে। তবে জামিনে মুক্ত রয়েছে সে। কাটোয়া বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় জানান – ম্যাসলম্যানদের দিয়ে ভোটে জিততে চলেছে তৃণমূল। তৃণমূলের তরফে জানানো হয়েছে – জঙ্গল সেখ অভিযুক্ত মাত্র, বিচারকের রায়ে দোষী নয়। তবে কাটোয়া শহরবাসীদের মনে তীব্র আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে জঙ্গল-কে নিয়ে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট