দ্রুত ব্রিজের কাজ সম্পূর্ণ করার দাবীতে কালিয়াগঞ্জে পথ অবরোধে সামিল ভারতীয় জনতা যুব মোর্চা


বৃহস্পতিবার,১৮/০৬/২০১৫
299

বিকাশ সাহাঃ    দ্রুত ব্রিজের কাজ সম্পূর্ণ করার দাবীতে এদিন বৃহস্পতিবার সকালে উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ থানার অন্তর্গত কালিয়াগঞ্জ- দুর্গাপুর রাজ্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোব দেখাল ভারতীয় জনতা যুব মোর্চা। ভারতীয় জনতা যুব মোর্চার জেলা সভাপতি গৌরাঙ্গ দাসের নেতৃতে শতাধিক কর্মী সমর্থক ৮ নম্বর মুস্তফানগর গ্রাম পঞ্চায়েতের সামনে পথ অবরোধে সামিল হন। ঘণ্টা দুয়েকের পথ অবরোধের জেরে আটকে পড়ে বেশ কিছু গাড়ি। পথ অবরোধের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন কালিয়াগঞ্জ থানার পুলিশ। অবরোধকারীদের সঙ্গে পুলিশ আধিকারিকরা বেশ কিছুক্ষন আলোচনার পরেও অবরোধ না ওঠায় ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন কালিয়াগঞ্জের যুগ্ম সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক শ্রীমন্ত মালিক। যুগ্ম বিডিও এর কাছ থেকে আশ্বাস পেয়ে এদিনের মত অবরোধ তুলে নেন ভারতীয় জনতা যুব মোর্চার কর্মী সমর্থকরা। পড়ে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।
ভারতীয় জনতা যুব মোর্চার জেলা সভাপতি গৌরাঙ্গ দাস বলেন, কালিয়াগঞ্জ থেকে কুনোরগামী এই ব্রিজ দুবছর ধরে ভাঙ্গা অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে ছাত্র ছাত্রী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ নানা অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছেন। যার জেরে এর আগেও আমরা পথ অবরোধে সামিল হয়েছিলাম। এই ব্যাপারে বিভিন্ন সময় কালিয়াগঞ্জ সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিককে বলা সত্ত্বেও তিনি কোন রকম পদক্ষেপ গ্রহন করেন নি। এই ব্রিজের নিম্ন মানের কাজ কিছুটা করার পর কাজ ছেড়ে পালিয়ে যায় ঠিকাদার। এলাকার মানুষ ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে পৌঁছতে এই রাস্তা ব্যবহার করেন। এই ব্রিজটি পুরোপুরি ভাঙ্গার পর পাশে যে অস্থায়ী এবড়োখেবড়ো রাস্তা তৈরি করা হয়েছে তার উপর দিয়ে গাড়ি ঘোড়া চলতে গিয়ে হামেশাই দুর্ঘটনার কবলে পড়ছে। বর্ষার সময় এই অস্থায়ী রাস্তা ডুবে যাওয়ার কারনে এলাকার সাধারণ মানুষ দৈনন্দিন কাজে যেতে প্রচণ্ড অসুবিধার সম্মুখীন হন।
সুত্রের খবর, সরকারী নিয়ম মেনে কাজ করানো নিয়ে বিভাগীয় ইঞ্জিনিয়ার ও ঠিকাদার সংস্থার বিবাদের জেরে বন্ধ হয়ে রয়েছে উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ ব্লকের ৮ নম্বর মুস্তফানগর গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত কুনোর গ্রামের ভাঙ্গাপুল সেতুর কাজ। পূর্ত দফতরের অধীন ২ কোটি ৬৮ লক্ষ টাকা ব্যায়ে কালিয়াগঞ্জ থেকে কুনোর হয়ে ইটাহারের দুর্গাপুরে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে মিলিত হওয়া এই রাজ্য সড়কের নতুন এই সেতু নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছিলো। ২০১৩ সালের নভেম্বর মাসে এই সেতুর কাজ শুরু হলেও পুরানো ব্রিজ ভাঙ্গা , কয়েকটি পিলারের সামান্য অংশ ও পাশ দিয়ে লোকজনের যাতায়াত করার জন্য সামান্য মাটি ও ভাঙ্গা ইট দিয়ে উচু করে দেওয়া ছাড়া কোন কাজ হয়নি আজ পর্যন্ত । ৫২ পিলারের উপর তৈরি এই সেতু নির্মাণের কাজ নতুন ভাবে কবে শুরু হয় এখন সেটাই দেখার অপেক্ষা।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট