দীপা দাসমুন্সীর নামাঙ্কিত ফলক উপরে ফেলা হল কালিয়াগঞ্জে


রবিবার,১৩/০৯/২০১৫
281

বিকাশ সাহাঃ    উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জে উপরে ফেলা হল দীপা দাসমুন্সীর নামাঙ্কিত ফলক। ঘটনাটি ঘটেছে কালিয়াগঞ্জ পৌরসভার অন্তর্গত ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কংগ্রেস পার্টি অফিসে। ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের পঞ্চমবার জয়ী বর্ষীয়ান কংগ্রেস কাউন্সিলার বসন্ত রায়, যিনি বিদায়ী পৌর বোর্ডের উপ পৌরপতি ছিলেন। পঞ্চম বারের জন্য ফের কালিয়াগঞ্জ পৌরসভায় কংগ্রেস ক্ষমতায় আসলে অভিজ্ঞ কাউন্সিলার বসন্ত রায়কে উপ পৌরপতি না করায় ভীষণ ক্ষুব্ধ হয়ে ছিল ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলারের অনুগামী কংগ্রেস কর্মীরা। উপ পৌরপতির পদ থেকে বসন্ত বাবুকে সরিয়ে দেওয়ার প্রতিবাদে কালিয়াগঞ্জ পৌরসভার বোর্ড গঠনের পরবর্তী সময়ে ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের পার্টি অফিসের দেওয়ালে লাগানো উদ্বোধক হিসেবে দীপা দাসমুন্সীর নামাঙ্কিত ফলকে দীপা দেবীর নামের উপর কালির প্রলেপ লাগিয়েছিল বসন্ত রায়ের অনুগামী কংগ্রেস সমর্থকরা। উপ পৌরপতির পদ নিয়ে কোন্দলের জেরে গত ১১ সেপ্টেম্বর শুভেন্দু অধিকারীর হাত ধতে ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কংগ্রেস কাউন্সিলার সহ শতাধিক কংগ্রেস কর্মী তৃনমূল কংগ্রেসে যোগদান করে। আর তারপরেই দীপা দেবীর উদ্বোধনী ফলকে এবার আর কালির প্রলেপ নয়, গোটা ফলকটিকে কংগ্রেস পার্টি অফিসের দেওয়াল থেকে উপরে ফেলে দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনা নজরে আসতেই আলোড়ন ছড়িয়ে পড়েছে রাজনৈতিক মহলে।
১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলার বসন্ত রায় বলেন, ফলকটি কে উপরে ফেলেছে তা আমি জানিনা। ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের পার্টি অফিস আমার নেতৃত্বেই তৈরি হয়েছে। আগামী দিনে এই অফিস কাদের থাকবে দলের কর্মীরাই তা ঠিক করবে।
কালিয়াগঞ্জ পৌরসভার পৌরপতি অরুন দে সরকার বলেন, তৃনমূল কংগ্রেসের কর্মীরাই কংগ্রেসের পার্টি অফিসের দেওয়ালের ফলক ভেঙ্গেছে। আমরা এই ব্যাপারে থানায় লিখিত অভিযোগ জানাব।DSCN8170

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট