কবিতা


মঙ্গলবার,২২/০৯/২০১৫
304

ইতিবৃত্তান্ত
সুতপা চক্রবর্তী
সেদিনের এক অঝোর বৃষ্টির মধ্যে
নগরমোহন বলল, তুই আমার!!!

তারপর মেঘ কেটে গিয়ে রোদ উঠল,
আকাশ জুড়ে ছড়িয়ে পড়ল আলো,
চাষীরা চাষ শুরু করল।
এক নগ্নিকা শুধু হেসে কেঁদে ভাসিয়ে দিল মাটি…

অনেক বছর পরে ঝিম ধরা সকালে
নগরমোহন বলল, তুই আমার!!

তারপর আঁধার কাটা আলোয় ফুল ফুটল,
ফল ফলল, পাখিরা গান গেয়ে উঠল,
আদিম আলোয় ভেসে গেল জীবন।
সেই নগ্নিকা নৃত্য-গীতে ভাসিয়ে দিল হৃদয়…

আরো কিছুদিন পরে এক শুকনো দুপুরে
নগরমোহন বলল, তুই আমার।
সেদিনের সন্ধেবেলায় উঠোনের তুলসিমঞ্চে জ্বলে উঠল আলো
মাথায় আঁচল দিয়ে প্রণমি ভঙ্গিমায় বধুয়া বিনত হল
চাঁদ উঠল মেঘ ভাঙা আকাশে
নগ্নিকা চাঁদের আলো নিয়ে কাটাকুটি খেলতে শুরু করল…
এরপরে আরো একবার নগরমোহন বলেছিল
তুই আমার।।

পৃথিবী তখন অনেকটা এগিয়ে গিয়েছিল,
নগ্নিকার শরীর জুড়ে আগমনীর সুর,
মাঠ-ঘাট, আলোয়-আঁধারে ভাসছিল ছোটবেলার ন্সটালজিয়া,

কবি শুধু তার দোয়াত-কলম নিয়ে কাটাকুটি
খেলছিল এক দিগন্তবিসারী আলোর মধ্যিখানে…

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট