চোলাই মদ অভিযানে এসে আদিবাসী মহিলাদের মারধর ও ঘরবাড়ি ভাঙচুর অভিযোগ জেলা আবগারি দপ্তরের কর্মীদের বিরুদ্ধে


বৃহস্পতিবার,০৯/০৮/২০১৮

বাংলা এক্সপ্রেস ---

অভিযান চোলাই মদ নির্মূল। আর সেখানেই  আদিবাসী মহিলাদের মারধর ও ঘরবাড়ি ভাঙচুর করার অভিযোগ উঠল জেলা আবগারি দপ্তরের কর্মীদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার হেমতাবাদ থানার পাতিপুকুর আদিবাসী পাড়ায়। যদিও তাদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছে আবগারি দপ্তর। এই ঘটনায় হেমতাবাদের পাতিপুকুর আদিবাসী পাড়ায় উত্তেজনা দেখা দিয়েছে।

হেমতাবাদের পাতিপুকুর আদিবাসী পাড়ায় অবৈধ চোলাই মদ তৈরি ও ব্যাবসা চালানোর খবর পেয়ে জেলা আবগারি দপ্তরের সুপারিন্টেন্ডেন্ট এর নেতৃত্বে দপ্তরের কর্মীরা হানা দেয়। নষ্ট করে দেওয়া হয় বেআইনি চোলাই মদ তৈরির উপকরন ও সরঞ্জাম। কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে একজনকে আটক করে আবগারি দপ্তর। এদিকে এলাকার আদিবাসী মহিলাদের অভিযোগ, চোলাই মদ অভিযান করতে এসে নির্বিচারে মহিলাদের ব্যাপক মারধর করে। আদিবাসী মহিলাদের বক্তব্য,” এই চোলাই মদ তৈরি করা ছাড়া আমাদের আর কিছু করার নেই। আমরা গরীব দুস্থ মানুষ, পেটের তাগিদেই এই কাজ করতে হয় তাদের “। আবগারি দপ্তরের কর্মীরা অভিযানের নামে এলাকার মহিলাদের মারধর করার পাশাপাশি বাড়িঘরেও ভাঙচুর চালিয়েছে অভিযোগ এলাকার আদিবাসী মহিলাদের। আবগারি দপ্তরের এই অত্যাচারের বিচার চান তারা। এব্যাপারে জেলা আবগারি দপ্তরের সুপারিন্টেন্ডেন্ট জানিয়েছেন, শুধুমাত্র অভিযান চালিয়ে চোলাই মদ তৈরির উপকরন ও সরঞ্জাম নষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। কোনও মারধর বা ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেনি। আবগারি দপ্তরের আধিকারিকের পালটা অভিযোগ, অভিযান চালানোর সময় এলাকার মহিলারা গাড়ি আটকানোর চেষ্টা করে এবং ঢিল ছোঁড়ে। তাদের ছোঁড়া ঢিলের আঘাতে জখম হন দপ্তরের সুপারিন্টেন্ডেন্ট তপন কুমার মাইতি।

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট