তৃণমূলে যোগ দিলেন কাটোয়ার বিধায়ক


শুক্রবার,২৯/০৫/২০১৫
275

খবরইন্ডিয়াঅনলাইনঃ   তৃণমূলে যোগ দিলেন কাটোয়ার কংগ্রেসের দীর্ঘদিনের বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়। আজ তৃণমূল ভবনে পার্থ চট্টোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, অরূপ বিশ্বাসের উপস্থিতিতে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন তিনি। তাঁর হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ স্থানীয় নেতারা রবীন্দ্রনাথ ছাড়াও কাটোয়া পৌরসভার ৮ কংগ্রেস কাউন্সিলর, দাঁইহাট পৌরসভার ১ কাউন্সিলর এবং ৪ পঞ্চায়েত প্রধান সহ মোট ৬৫ জন পঞ্চায়েত সদস্য তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন।গত সপ্তাহে বিধানসভায় তাঁর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সাক্ষাতের সময়েই দলবদলের সম্ভাবনা উজ্জ্বল হয়েছিল। তখন অবশ্য খোলসা করে কিছুই বলেননি বর্ষীয়ান এই কংগ্রেস নেতা। জল্পনা আরও বাড়ে বুধবার। সেদিন কংগ্রেসের পরিষদীয় দলের সহকারী নেতা এবং প্রদেশ কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে অব্যাহতি চেয়ে অধীর চৌধুরী ও মহম্মদ সোহরাবকে চিঠি পাঠান তিনি। শেষে জানিয়েছিলেন, প্রদেশ সভাপতির সঙ্গে কথা বলেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন। অবশেষে আজ দলবদল করেন রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়। ২০১১ সালে রাজ্য জুড়ে পরিবর্তনের হাওয়া বইলেও বর্ধমানের কাটোয়া থেকে কংগ্রেসের টিকিটে জিতেছিলেন রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়। এবারের পুরভোটেও রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় কাটোয়া। তৃণমূলের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ তোলে বিরোধীরা। এই পরিস্থিতিতেও, রবীন্দ্রনাথের কাটোয়ায় কংগ্রেস কিন্তু তৃণমূলের সঙ্গে সমানে সমানে টক্কর দিয়েছে। এ হেন রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় আসন্ন বিধানসভা ভোটের আগে নাম লেখালেন তৃণমূলে। যা রাজনৈতিক ভাবে যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে পর্যবেক্ষকদের একাংশ।কংগ্রেসের একাংশের অভিযোগ, পৌরভোটের দিন কাটোয়ায় তৃণমূল কর্মী খুনের ঘটনায় রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ দায়ের হয়েছিল। এই নিয়েই চিন্তিত তিনি। দলবদল করলে তাঁকে অভিযোগ থেকে মুক্তি দেওয়া হবে বলে মুখ্যমন্ত্রী তাঁকে টোপ দেন। কলঙ্কমুক্ত হওয়ার জন্য কার্যত বাধ্য হয়েই তিনি এই সিদ্ধান্ত নিলেন বলে মনে করছে কংগ্রেস নেতৃত্বের একাংশ। আগামী দিনে, বিধানসভা ভোটের আগে যদি রাজ্যে কংগ্রেস-তৃণমূল জোট হয় সেক্ষেত্রে, আসন বণ্টনের ক্ষেত্রে তৃণমূলের হাতে রাশ থাকার সম্ভাবনা। সেক্ষেত্রে দক্ষিণবঙ্গ, যেটা তৃণমূলের গড় বলে পরিচিত, সেখানে তৃণণূলেরই বেশি নেতার টিকিট পাওয়ার সম্ভাবনা। ফলে, কংগ্রেসের অনেক নেতাই হয়ত টিকিট নাও পেতে পারেন। আবার, কংগ্রেস-তৃণমূল জোট যদি নাও হয়, তা হলেও, আসন্ন বিধানসভা ভোটে হাত ছেড়ে শাসক দলের টিকিটে লড়লে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট