ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠল নারী পাচারের !


সোমবার,২০/০৭/২০১৫
314

খবরইন্ডিয়াঅনলাইনঃ     এক ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আধ্যাত্মিকতার আড়ালে নারী পাচারের অভিযোগ উঠল সল্টলেকে।   ঈশ্বরীয় বিশ্ববিদ্যালয়। দেশজুড়ে ছড়িয়ে থাকা এক ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের শাখা। এখানে নাকি, আত্মা ও পরমাত্মার শিক্ষা দেওয়া হয়। সেখানেই নাকি ধর্মের মোড়কে চলছে অন্ধকারের ব্যবসা? বেশ কয়েকজন অভিভাবক এবং একাধিক NGO-র তরফে অভিযোগ এখান থেকে উধাও হয়ে গেছে বহু নাবালিকা। রবিবার সেখানে অভিযান চালায় চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটি। প্রতিষ্ঠানের পরিচালনায় একাধিক অনিয়ম পেয়েছে তারা। প্রতিষ্ঠানে নিয়মবিরুদ্ধ ভাবে রাখা হয়েছে নাবালিকাদের। এই ধরনের প্রতিষ্ঠান চালানোর কোনও লাইসেন্স মেলেনি। সংস্থাগতভাবে কোনও রেজিস্ট্রেশন প্রতিষ্ঠানের নেই। আবাসিকদের জন্য কোনও রেজিস্টার নেই। আবাসিকদের নাম, বয়স, ঠিকানা সংক্রান্ত কোনও তথ্য মেলেনি।প্রতিষ্ঠানের মধ্যে যেসব আবাসিকদের সঙ্গে কথা বলা হয়েছে, তাঁদের সকলকেই আচ্ছন্ন অবস্থায় পেয়েছেন তদন্তকারীরা। শিখিয়ে দেওয়া বুলির বাইরে কিছুই বলতে পারছেন না তাঁরা। এছাড়া স্থানীয় এক তরুণীকে উধাও করে দেওয়ার অভিযোগও উঠেছে। বেশ কয়েকজন নাবালিকাকে আটকে রাখার অভিযোগ ছিল। তাদের খোঁজ পাননি তদন্তকারীরাও । তবে খোঁজ মিলেছে মুম্বইয়ের এক কিশোরীর। আগামী বুধবারের মধ্যে কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা সংক্রান্ত যাবতীয় নথি চেয়ে পাঠিয়েছে চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটি। অনিয়ম ধরা পড়লে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ঈশ্বরীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিকদের সঙ্গে কথা বলে চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটির সন্দেহ, এতে জড়িয়ে রয়েছে বড়সড় নারীপাচার চক্র। তাঁর জানতে পেরেছেন, আট থেকে দশ বছর বয়সী মেয়েদেরই এই প্রতিষ্ঠানে নিয়ে আসা হয়। মূলত গরিব ও হতদরিদ্র পরিবারের মেয়েদেরই এখানে আনা হয়। প্রতিষ্ঠানে একবার ঢোকার পর পরিবারের সঙ্গে কিশোরীদের কোনও সম্পর্ক থাকে না। ধর্মীয় শিক্ষা ও অনুশাসন ছাড়া কিশোরীদের প্রথাগত কোনও শিক্ষা দেওয়া হয় না। নির্দিষ্ট সময় অন্তর কিশোরীদের প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন শাখায় ঘোরানো হয়। আবাসিক রেজিস্টার না থাকায়, কে-কবে-কোথায় ছিল জানার উপায় নেই। তদন্তকারীদের সন্দেহ, সাবালক হলেই আবাসিকদের হয়তো বাইরে পাচার করে দেওয়া হয়।সত্য উদঘাটনে সেখানকার কিশোরীদের কাউন্সেলিয়ের কথা ভাবা হচ্ছে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট