টিফিনের খরচা বাঁচিয়ে গরীব মানুষের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করলো কালিয়াগঞ্জের কলেজ পড়ুয়ারা


শুক্রবার,০১/০১/২০১৬
786

বিকাশ সাহাঃ    নিজের টিফিনের খরচা বাঁচিয়ে গরীব মানুষের হাতে কম্বল ও পোশাক তুলে দিল এক ঝাঁক কলেজ পড়ুয়া । এদিন ১লা জানুয়ারী সকাল থেকেই যখন কালিয়াগঞ্জের মানুষ পিকনিক করতে বেড়িয়ে পড়েছেন, ঠিক তখনই তার বিপরীত দিকে হেঁটে কালিয়াগঞ্জের মারয়ারী পট্টি এলাকার এক ঝাঁক তরুণ ভোর ৫ টা থেকে গরীব মানুষের সহায়তায় নেমে পড়েছেন রাস্তায়। কালিয়াগঞ্জের বাসস্ট্যান্ড এলাকা হয়ে কালিয়াগঞ্জ ষ্টেশন, শিমুলতলা, কুনোর মোড়, ধনকৈল হাট, ডালিমগাঁ স্টেশন সহ ডালিমগাঁ এলাকার গ্রাম গুলিতে গিয়ে দুঃস্থ গরীব মানুষের শীত নিবারণ করতে তাঁদের হাতে ও গায়ে কম্বল জড়িয়ে দিলেন তাঁরা।
কালিয়াগঞ্জের মারয়ারী পট্টির বেশ কয়েকজন বন্ধু মিলে দার্জিলিং ঘুরতে যাবার পথে দুঃস্থ অসহায় মানুষদের দেখে তাঁদের মনে দাগ কেটেছিল। সেই সময় পথের ধারে সেই অসহায় মানুষদের সামান্য খাবারেরও ব্যবস্থা করেছিল তাঁরা। এরপরেই বাড়ি ফিরে এসে ২০১৫ সালের জুলাই মাসে বন্ধুরা মিলে “দোয়া” নামের সংগঠন তৈরী করে ফেলে। সংগঠনের সকল সদস্যরাই সব কাজ করে। ফলে সংগঠনে প্রয়োজন হয়নি সভাপতি, সম্পাদকের মত ভারী ভারী পদের।
এখন এই সংস্থার মোট সদস্য ১৭ জন। প্রত্যেকে টিফিন খরচা থেকে প্রতি মাসে ৫০ টাকা করে জমা করেন সংগঠনের নামে। সেই সঙ্গে প্রতি সদস্য তাঁদের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে কাটছাঁট করে সেখান থেকে ২০০ টাকা বের করে সংগঠনের খাতায় জমা রাখেন। তাঁদের জমানো টাকা সহ এলাকাবাসীদের কাছে সাহায্য নিয়ে বছরের প্রথম দিনেই দুঃস্থ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে তাঁরা। বস্ত্রবিতরণ করার উদ্দেশ্যে শীত পড়ার আগেই শহরের বাড়ি গুলি থেকে পুরানো জামাকাপড় সংগ্রহ করে রেখেছিল । এদিন ৬৫ টি নতুন কম্বল ও পুরানো শাড়ি, জামা, প্যান্ট গরীব মানুষের হাতে তুলে দেন তাঁরা। শীতের হাত থেকে বাঁচতে কম্বল ও জামাকাপড় পেয়ে তরুণ যুবকদের মাথায় হাত দিয়ে আশীর্বাদ করেন কালিয়াগঞ্জের এই সকল অসহায় দুঃস্থ মানুষজন। DSCN8170

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট