বিধায়কের এলাকায় সভা, খবর পেল না বিধায়ক !


রবিবার,১৭/০১/২০১৬
449

পরিতোষ বর্মণঃ    গোষ্ঠী কোন্দল মেটাতে কিছু দিন আগে দলের শীর্ষ নেতৃত্বরা দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা কর্মীদের নিয়ে বৈঠকে করেন। কিন্তু দলের শীর্ষ নেতৃত্বের দাওয়াই তে যে চিড়ে ভিজবে তা আজ দলীয় গোষ্ঠী কোন্দলের মাধ্যমে আবার নজরে এলো। রবিবার গঙ্গারামপুর থানার ফুলবাড়ি হাইস্কুল মাঠে তৃণমূল কংগ্রেসের অঞ্চল কমিটির সভা চলছিল। সেই সভায় হাজির ছিলেন জেলা পরিষদের সভাধিপতি ললিতা তিগ্যা, সহকারী সভাধিপতি কালিপদ সরকার সহ অন্যান্যরা। নিজ বিধানসভায় তৃণমূলের জনসভা হচ্ছে তা জানতে পেরে ঘটনাস্থলে যান কুমারগঞ্জ বিধানসভার বিধায়িকা মাহুমেদা বেগম। ফুলবাড়ি গঙ্গারামপুর থানার মধ্যে পড়লেও সেটি কুমারগঞ্জ বিধানসভার অন্তর্গত। নিজ বিধানসভায় তৃণমূলের সভা হলেও তাকে তা জানানো হয়নি বলে অভিযোগ কুমারগঞ্জ বিধানসভার বিধায়িকা মাহুমেদা বেগম। খবর পেয়ে সেখানে যান তিনি। এর পর মঞ্চে মাইকে থেকে তিনি জানতে চান সভাটির আয়োজন কে করেছে। এ প্রশ্ন করাতেই ওনার মাইক কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন জেলা পরিষদের সভাধিপতি ললিতা তিগ্যা, সহকারী সভাধিপতি কালিপদ সরকার সহ অন্যান্যরা বলে তিনি অভিযোগ করেন। এমনকি সভায় বক্তব্য রাখতে নিষেধ করা হয় তাকে। তিনি মাইকটি না দিলে মাইকের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ মাহুমেদা বেগমের।
অন্য দিকে জেলা পরিষদের সহকারী সভাধিপতি কালিপদ সরকার বলেন, এমন কোন ঘটনা ঘটেনি। ওনাদের আমন্ত্রণ করা হয়েছিল সেই জন্য ওই সভাতে হাজির হয়েছিলেন। তিনি উল্টে অভিযোগ করেন, কুমারগঞ্জ বিধানসভার বিধায়িকা যদি বিষয়টি নাই জানতেন তাহলে উনি সভায় হাজির হলেন কি করে। তার বিরুদ্ধে কুৎসা রটানোর চেষ্টা হচ্ছে বলে কালিপদ সরকার অভিযোগ করেন।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট