দিদির মৃত দেহ কে আগলে ধরে মানসিক ভারসাম্যহীন বোন


মঙ্গলবার,২০/০৩/২০১৮
483

বাংলা এক্সপ্রেস:
দিদি মারা গিয়েছেন প্রায় ১৩-১৪ দিন আগে তবু তার মৃতদেহ সৎকারের পরিবর্তে বাড়ি রেখে দিলেন বোন। ঘটনাটি ঘটে আলিপুরদুয়ারের উদয়ন বিতান এলাকায়। অবশেষে সোমবার লোকাল থানার পুলিশ দরজার তালা ভেঙে উদ্ধার করে মৃতদেহ ও তার বোনকে।
পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতার নাম লিপিকা দে। বয়স ৫৮ বছরের কাছাকাছি। তিনি দিন ১৩-১৪ আগেই মারা গিয়েছেন। কিন্তু দিদির এই মৃত্যুকে মেনে নিতে পারেননি তার ছোট বোন অলকানন্দা দে। সোমবার অলকানন্দা দেবী তার আর এক বোনের কাছে ফোন করে লিপিকা দেবীর মৃত্যুর খবর দেন। তিনি স্থানীয় পৌরসভার এক আধিকারিক কে ফোন করে বিস্তারিত জানাতেই খবরটি জানাজানি হয়।
মৃতদেহটি উদ্ধার করে পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে ঠিক কি কারণে অলকানন্দা দেবী তার মৃত বোনের দেহ আগলে রেখেছিলেন তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে খবর, ওই বাড়িতে দুই বোন লিপিকা দে ও অলকানন্দা দে এবং তাদের মা মঞ্জু দে বাস করতেন। বছর খানেক আগে মঞ্জু দেবী গত হন। লিপিকা দেবীর বিয়ে হলেও মানসিক ভারসাম্যহীনতার জন্য তার ডিভোর্স হয়ে যায়। এদের আর এক বোনের তিনি পুরুলিয়া জেলা হাসপাতালের নার্স। তিনিই ফোন করে খবরটি জানান। তিনি এ ও জানান তাঁর বড় বোন ও ছোট বোন মানসিক ভারসাম্যহীন। তিনি নিজেও অনেকবার তাদের অত‍্যাচারের শিকার হয়েছেন। সুতরাং এ ঘটনা তার কাছে আকস্মিক হলেও বিস্ময়কর নয়।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট