রাখি বন্ধনে, রক্ত দানে স্বতঃস্ফূর্ত মহিলারা


শনিবার,২৫/০৮/২০১৮
466

বাংলা এক্সপ্রেস---

রানাঘাট: রবিবার রাখি বন্ধন উৎসব। তার আগেই এই ভ্রাতৃত্ব বন্ধনে বাঁধলেন গ্রামীন ওই মহিলারা। সেই সঙ্গে স্বতঃস্ফূর্ততার সঙ্গে অংশ নিলেন স্বেচ্ছায় রক্ত দান করতে। রানাঘাট শহর থেকে কয়েক কিলোমিটার দূরে আনুলিয়া মানিকতলা। সেখানকার চৌরঙ্গীর উদ্যোগে আয়োজন করা হয়েছিল স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবির ও চক্ষু পরীক্ষা শিবির।রানাঘাট থানার সহযোগিতায় আয়োজিত এই সেবা মূলক অনুষ্ঠানে স্থানীয় মহিলাদেরই ভূমিকা ছিল সবচেয়ে বেশি।চন্দনের তিলক পড়িয়ে অতিথি বরণ থেকে শুরু করে রক্তদানের অঙ্গিকার– প্রশংসনীয় ছিল সেই ভূমিকা।নতুন গড়ে উঠছে আনুলিয়া মানিকতলার এই গ্রামটি।সবুজের হাতছানি গোটা এলাকায়।সাধারণ পরিবারের বসতিরই আধিক্য।প্রথমবারের জন্য ছিল এই সেবামূলক কর্মসূচি।যে কর্মসূচিকে আপন করে নিয়েছিলেন এখনকার প্রতিটি পরিবারের বাসিন্দারা।যেন হয়ে উঠেছিল তাঁদের নিজস্ব পারিবারিক অনুষ্ঠান।
এই অনুষ্ঠানে অতিথির তালিকাও নেহাত ছোট ছিল না।আর উৎসাহ দিতে স্বয়ং হাজির হয়েছিলেন রানাঘাট থানার আই সি।

এলাকার শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার ও অপরাধ মূলক কাজ যাতে না ঘটে তা বন্ধ করতে পুলিশকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মানবাধিকার সংগঠক সুনীত গোপ, সমাজকর্মী বাবলী মুখার্জী, সমাজসেবী শ্যাম ঘোষ, ওঙ্কার টিভি চ্যানেলের সাংবাদিক বিকাশ ঘোষ প্রমুখ। প্রদীপ প্রজ্বলন করে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন বাবলী মুখার্জী।তিনি বলেন, সমাজিক কর্মকান্ডে আরও বেশি করে এগিয়ে আসতে হবে মহিলাদের।তবেই পৃথিবী হয়ে উঠবে আরও সুন্দর।সুনীত গোপ তাঁর বক্তৃতায় এধরনের কর্মসূচি আরও বেশি করে গ্রহন করার আবেদন জানান।সাংবাদিক বিকাশ ঘোষ বলেন, যে সবুজায়ন এলাকার পরিবেশকে সুন্দর রেখেছে তা যেন ধ্বংস না হয়।গ্রামবাসীদেরই পরিবেশ রক্ষায় অগ্রণী ভূমিকা নিতে হবে। অনুষ্ঠান আয়োজনে এলাকার নতুন বাসিন্দা তথা সাংবাদিক কমল দত্ত’র ভূমিকা ছিল অনেকটাই।গোটা অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন শুভঙ্কর মিস্ত্রী।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট