মাওবাদী প্রবেশ নিয়ে পুলিশকে আরও কড়া হতে নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর


বুধবার,২৮/১১/২০১৮
206

কার্ত্তিক গুহ---

ঝাড়গ্রাম: ঝাড়গ্রামে প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিভিন্ন দফতরকে সতর্ক করে মাওবাদী প্রবেশ নিয়ে পুলিশকে আরও কড়া হতে নির্দেশ দেন । সেই সঙ্গে সীমানা সিল করে নাকা চেকিং-এ গুরুত্ব দিতে বলেন তিনি।সম্প্রতি লালগড়ে শবর মৃত্যু নিয়ে সোমবারের প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বিডিও থেকে মহকুমা শাসক ও জেলা শাসকদের সতর্ক করেন। তাদের কাজকর্মের ক্ষতিয়ান দেখে বেশ কয়েকজনের ঢিলেমীর জন্য বকাঝকাও করেছেন। সেই সঙ্গে রেশনের সামগ্রীর সমবন্টন হচ্ছে কিনা তা নিয়মিত চেকিং এর নির্দেশও দেন। এরপরেই উঠে আসে ঝাড়খন্ড ও ওড়িশা সীমানা দিয়ে মাওবাদী প্রবেশের প্রসঙ্গ। বৈঠকে উপস্থিত রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র সিং সহ সকলকে তিনি বলেন, ঝাড়খণ্ডের বর্ডার থেকে মাঝেমধ্যে মাওবাদীরা এ রাজ্যে আসছে।

মাওবাদী বলে কিছু নেই, এসব ঝাড়খন্ড থেকে আমদানি করছে গেরুয়ারা। তাই সীমানা সীল করে বিভিন্ন এলাকায় নাকা চেকিং করতে হবে।’একই সঙ্গে অবৈধ বালি খাদান বন্ধ করার নির্দেশও দেন মুখ্যমন্ত্রী। জেলার ভুমি সংস্কার দপ্তরের আধিকারিকের সতর্ক করে তিনি বলেন,’অবৈধ বালি খাদানের কারনে সব দিক থেকে ক্ষতি হচ্ছে। সরকারের কোন রাজস্ব আসছে না, অথচ সরকারের বদনাম হচ্ছে। তাই ওগুলি যতদ্রুত সম্ভব বন্ধ করুন।’ উপস্থিত প্রশাসনের আধিকারিক ও জনপ্রতিনিধিদের তিনি বলেন,’জঙ্গলমহলে চাহিদার থেকে অনেক কিছু বেশি দেওয়া হয়েছে। তাই জঙ্গলমহলে দেওয়ার আর কিছু নেই। এখন শুধু মানুষের কাছে যেতে হবে মানুষকে বোঝাতে হবে। যে মানুষ ভুল বুঝেছে, তাদের কাছে গিয়ে বোঝাতে হবে, সম্পর্কের উন্নতি ঘটাতে হবে।’পরে জঙ্গলমহলে হাতি সমস্যা নিয়েও বনদফতরকে এক হাত নেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী বনাধিকারিকদের প্রশ্ন করেন,’হাতির হানায় কেন প্রতি বছর এত লোকের মৃত্যু হচ্ছে? হাতি তাড়ানোর ক্ষেত্রে এখনও কেন কোন মজবুত রাস্তা বের করতে পারছে না বনদফতর? অবিলম্বে মানুষকে হাতি থেকে নিরাপদে রাখার ব্যাবস্থা করুন।’

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট