কল্পতরু উৎসব উপলক্ষে ভক্তদের সমাগম ভাঙ্গড়ের রামকৃষ্ণ ভক্তসঙ্ঘে


মঙ্গলবার,০১/০১/২০১৯
822

বাংলা এক্সপ্রেস---

আজ কল্পতরু উৎসব উপলক্ষে হাজার হাজার ভক্তের সমাগম ঘটে ভাঙ্গড়ের রামকৃষ্ণ ভক্তসঙ্ঘে। আজ বছরের প্রথম দিন অজস্র সাধারন মানুষ আজ নিজের ও পরিবারের মঙ্গলকামনায় এসেছিলেন কল্পতরু উৎসবে। সকাল থেকেই উপচে পড়ে ভিড়। দীর্ঘদিন ধরে এই আশ্রমে কল্পতরু উৎসব পালন করা হয় জানান ভাঙ্গড়ে রামকৃষ্ণ ভক্তসঙ্ঘের মহারাজ। ভাঙ্গড়ের অন্যতম প্রাচীন মঠ এটি, ১৩৮৪ সালে এই মঠ স্থাপিত হয়েছিল। এই মঠ নিয়ে রয়েছে নানান ইতিহাস, এদিন বেলুর মঠের মহারাজ এর সান্নিধ্যে আরো আলোকিত করেছিল আজকের এই উৎসব।

মুলত শ্রী রামকৃষ্ণ পরমহংসদেবের সৃতিচারনায় আজকের এই উৎসব। এদিন এই মঠের পক্ষে থেকে ভোগ বিতরন কড়া হয়, সাথে রামকৃষ্ণ পরমহংসদেবের বানী প্রচারিত হয় আজকের এই কল্পতরু উৎসবের মধ্যে দিয়ে। ১৮৮৬ সালের ১ জানুয়ারি কল্পতরু হয়েছিলেন শ্রী রামকৃষ্ণ। সেই থেকেই এই দিনটিতে কল্পতরু উৎসব পালন করেন তাঁর ভক্তরা।কাশীপুর উদ্যানবাটিতে ১৮৬৬ সালের ১ জানুয়ারি রামকৃষ্ণ পরমহংসদেব কল্পতরু হয়ে ভক্তদের মনোবাসনা পূর্ণ করেছিলেন। সেই দিনটিকে স্মরণ করেই রামকৃষ্ণ মঠে কল্পতরু উৎসব হয়।

ভোরে আশ্রমে মঙ্গলারতি, বৈদিক মন্ত্র ও গীতাপাঠ ছাড়াও শ্রীশ্রী ঠাকুরের বিশেষ পুজো হয়। অন্যদিকে আজ সারাদিন ধরে কলকাতার বেলুর মঠের মত ভাঙরের সেবা সঙ্ঘের আয়োজিত এই অনুস্টানে সামিল হয়েছিলেন হাজার হাজার সাধারন মানুষ। দক্ষিণেশ্বর থেকে তারাপীঠ সবর্ত্র একই ছবি। আজকের দিনে ঠাকুর বলেছিলেন তোদের চৈতন্য হোক। কথিত আছে আজকের দিনে ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করলে সকলের মনস্কামনা পুরন হয়। কল্পতরু উৎসব উপলক্ষে সকাল থেকে কাশীপুর উদ্যানবাটি, দক্ষিণেশ্বর, বেলুড় মঠে ভক্তদের ঢল৷ আজ অর্থাৎ মঙ্গলবার সকালে মঙ্গলারতি হয়েছে কাশীপুর উদ্যানবাটিতে ৷ আজ দিনভর চলে পুজাপাঠ, রামকৃষ্ণ পরমহংসদেবের জীবন ও বাণী নিয়ে আলোচনা ৷.এক মনোমুগ্ধকর পরিবেশের মধ্যে দিয়ে আজকের এই উৎসব অনুষ্ঠিত হয় ভাঙরের সেবাসঙ্ঘে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট