হাওড়া কাঠিলায় ভেষজ আবিরের চাহিদা বাড়ছে


শনিবার,০৯/০৩/২০১৯
321

বাংলা এক্সপ্রেস---

হাওড়া: দিনকে দিন বাড়ছে ভেষজ আবিরের চাহিদা। ভেষজ আবির দিয়ে রঙের উৎসব মাতিয়ে তুলতে উদ্যোগী উলুবেড়িয়ার কাঠিলার স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা আশা ভবন সেন্টারের আবাসিক বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন কিশোর কিশোরীরা। দিন রাত ধরে গোলাপ, গাঁদা, অপরাজিত ফুল থেকে ভেষজ সুগন্ধি আবির তৈরি করে প্যাকেট বন্দী করতে ব্যস্ত সুপ্রিয়া, ফারুক, মন্টু, পূর্নিমারা। কেউ মূক ও বধির, কেউবা সেরিব্রাল পালসিতে আক্রান্ত। হাঁটা চলাতে অক্ষম। সকাল থেকেই সেন্টারের মাঠের পাশের কর্মশালায় ব্যাস্ততা তুঙ্গে।

একদল ব্যস্ত ফুল থেকে পাপড়ি ছিঁড়তে। অন্যরা ব্যস্ত তার থেকে রঙ নিষ্কাশনে। চলছে আবির রোদে শুকিয়ে প্যাকেটজাত করার কাজ‌ও। কাজের দেখভালের দায়িত্বে থাকা কর্মী জানান এই ভেষজ আবির পুরোপুরি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন।এই আবিরের ব্যাবহারের ফলে ত্বকের উপর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়না। টাটকা ফুল দিয়ে তৈরি করার ফলে এর উৎপাদন খরচ একটু বেশি বলেও তিনি জানান।

তিনি আরো বলেন ফুলের পাপড়ি ছাড়িয়ে তার সাথে ১:৩ অনুপাতে টেলকম পাউডার ও অ্যারারুট মিশিয়ে , জীবাণু মুক্ত করার জন্য তার মধ্যে নীম পাতা মিশিয়ে মিক্সার মেশিনে মিক্স করার পর রোদে শুকানো হয়। শুকিয়ে যাওয়ার পর তার সাথে সুগন্ধি মিশিয়ে প্যাকেটজাত করা হয়। আশা ভবণ সেন্টারের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদীকা মমতা ময়ী শুকেসী বাড়ুই ও আশা ভবণ সেন্টারের ডিরেক্টর জন মেরী বাড়ুই আমাদের জানান, আমাদের সাধ‍্যমতো আমরা সবাই মিলে আন্দোলন সংগ্রাম করে এগিয়ে চলেছি আমাদের সমাজের বিভিন্ন স্থানের বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন পরিবারের সদস্যদের পাশে দাঁড়াতে।

দিবারাত্রি কঠোর পরিশ্রম করে এগিয়ে চলেছি আমাদের কর্মী দের নিয়ে। আউট ডোর ও ইনডোর পরিষেবা সেবা, শিক্ষা চিকিৎসা ক্রীড়া সাংস্কৃতিক ধর্ম চর্চা কর্ম শিক্ষা, পরামর্শ, পরীক্ষা নিরীক্ষা স্বনির্ভর বিষয়ক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয় আশা ভবন সেন্টারের পক্ষ থেকে। বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন মেয়েরাও পরিবারের সদস্যদের পাশে দাঁড়াতে আর্থিক পরিকাঠামোর উন্নয়নের স্বার্থে আমাদের এগিয়ে যাওয়া।

বসন্তের ফাল্গুনে‌ হাওয়ায় হোলি দোল উৎসব বসন্ত উৎসব উপলক্ষে ভেষজ জৈব আবিরের চাহিদা বাড়ছে। গোলাপ পলাশ অপরাজিতা রজনী গন্ধা গাঁদা ফুলের পাপড়ির আবির একশো গ্রামের দাম ৪০ টাকা, পাঁচশো গ্ৰামের দাম ১৭৫ টাকা,১ কেজি ৩০০ টাকা বলে জানা গেছে। বিশেষ চাহিদা সম্পন্নদের পাশে দাঁড়াতে ও সমাজের মূল শ্রোতে ফিরিয়ে দিতে এদের হাত শক্ত করতে এগিয়ে চলুক। জয়োৎসব সচেতনতার সাথে দোল হোলি বসন্ত উৎসবে জৈব ভেষজ আবিরের ব‍্যাপক প্রচলনে এগিয়ে আসুন সকলে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট