পেঁয়াজের চারা অর্থনীতি বদলে দিয়েছে চন্দ্রকোণা রোডের নবকোলা গ্রামের


শুক্রবার,২৭/১২/২০১৯
829

পশ্চিম মেদিনীপুর :– পেঁয়াজের চারা অর্থনীতি বদলে দিয়েছে চন্দ্রকোণা রোডের নবকোলা গ্রামের। পেঁয়াজ চারা বিক্রি করে এই এলাকার চাষিরা এখন লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছেন। কুইন্টাল কুইন্টাল পেঁয়াজের চারা চাষিরা হাটে নিয়ে যাচ্ছেন। আর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তা বিক্রি হয়ে যাচ্ছে। গতবারের থেকে তিনগুণ বা তারও বেশি দামে এবার পেঁয়াজের চারা বিকোচ্ছে। আয় বেড়ে যাওয়ায় বেজায় খুশি চাষিরা। অনেকেই আগামী বছর আরও বেশি জমিতে পেঁয়াজের চারা লাগানোর পরিকল্পনা করছেন। পেঁয়াজ চারার এতটাই চাহিদা যে, গ্রামে এসেও অনেকে জমি থেকে চারা কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। চাষিদের বক্তব্য, দাম বৃদ্ধির জেরে এবার যাঁর জমি রয়েছে, তিনিই পেঁয়াজ চাষ করছেন। তাই চারার চাহিদা হঠাৎ বেড়ে গিয়েছে। শুধু পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা নয়, ঝাড়গ্রামের লালগড়, বেলপাহাড়ির মানুষও পেঁয়াজ চারা কিনতে হাটে আসছেন।

নবকোলা গ্রামের চাষিরা বহু বছর ধরেই জমিতে পেঁয়াজের চারা তৈরি করেন। যদিও এবার বুলবুলের কারণে অধিকাংশ চাষিকে দু’বার করে চারা বুনতে হয়েছে। তাতে কিছু টাকা তাঁদের লোকসান হয়েছে। কিন্তু, পেঁয়াজ চারার চড়া বাজারদর চাষিদের সব ক্ষতি পূরণ করে দিয়েছে। গোদাপিয়াশাল, শালবনী, পিড়াকাটা, গোয়ালতোড়, চন্দ্রকোণা রোড, আমলাশুলি, ঝাঁকরা, ক্ষিরপাই হাটে এই গ্রামের চাষিরা পেঁয়াজের চারা নিয়ে গিয়ে বিক্রি করছেন। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ হাটে এসে চারা কিনছেন।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট