বাজারে মাস্কের অভাব – সুরাহা দিতে এগিয়ে এলো হাড়োয়া গভর্নমেন্ট আই টি আই কলেজ


শুক্রবার,১৭/০৪/২০২০
653

হাড়োয়া , উত্তর ২৪ পরগনা : রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে মাস্ক বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। কিন্তু বাজারে প্রয়োজন মত মাস্কের অভাব। আবার পাওয়া গেলেও তা অনেক ক্ষেত্রে বিক্রি হচ্ছে কয়েকগুণ বেশি দামে। তারপরও একশ্রেণীর মানুষ সেই আবেদনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে বেরিয়ে পড়েছেন রাস্তায়। বালাই নেই সোশ্যাল ডিসটেন্সিংয়ের। এই সময়ে সাধারণ মানুষের সুরাহা দিতে এগিয়ে এলো হাড়োয়া গভর্নমেন্ট আই টি আই কলেজ । বাজার থেকে মাস্ক তৈরির কাঁচা মাল নিয়ে নিজেরাই তৈরি করে ফেলছেন মাস্ক। মাস্ক গুলো তৈরী করা হচ্ছে কলেজেই কর্মরত জাহানারা বিবি ও কলেজের ছাত্র – ছাত্রীদের তত্ত্বাবধানে।

যার মূল উদ্যোক্তা “হাড়োয়া গভর্নমেন্ট আই টি আই কলেজ” এর প্রিন্সিপাল রাহুল পাল। করোনাকে প্রতিহত করতে মাস্ক পরতেই হবে এই বার্তাও দিচ্ছেন তিনি। করোনা ভাইরাসের মত মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সকলকে এগিয়ে আসার বার্তা দেন তিনি। তিনি বলেন ” এই যুদ্ধে জিততেই হবে, পরতে হবে মাস্ক, চলবে না কোনো জমায়েত” ।

প্রাথমিক ভাবে আজ ২০০ মাস্ক, হাড়োয়া ব্লক আধিকারিক দীপঙ্কর দাস এর হাতে তুলে দেন “হাড়োয়া গভর্নমেন্ট আই টি আই কলেজ” এর শিক্ষক অভিজিৎ হালদার ও অফিস স্টাফ পার্থ বিশ্বাস। “হাড়োয়া গভর্নমেন্ট আই টি আই কলেজ” এর প্রিন্সিপাল রাহুল পাল ” বাংলা এক্সপ্রেস ” কে জানান , ” প্রতিদিন মাস্ক তৈরীর কাজ চলছে , যা আগামী দিনে ধাপে ধাপে পৌঁছে দেওয়া হবে হাড়োয়া থানা ও পঞ্চায়েত অফিস গুলিতে, এবং মাস্কগুলো সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সাধারণ জনগণের মধ্যে বিতরণ করা হবে সংশিলিস্ট অফিস গুলির মাধ্যমে। ”

মাস্ক খতিয়ে দেখছেন হাড়োয়া ব্লক আধিকারিক দীপঙ্কর দাস

দেশের প্রধানমন্ত্রী থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী – বারবার আবেদন রাখছেন লকডাউনকে মান্যতা দেওয়ার, জোর দিয়েছেন মাস্ক পরার উপর। আর এই “করোনা যুদ্ধে” সৈনিকের মতো সামিল হয়েছে হাড়োয়া গভর্নমেন্ট আই টি আই কলেজ।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট