নারায়ণগড় ব্লকে করোনা আক্রান্ত এলাকাগুলোতে দমকল এনে স্যানিটাইজ করার ব্যবস্থা করল ব্লক প্রশাসন


সোমবার,১৫/০৬/২০২০
408

পশ্চিম মেদিনীপুর :- নারায়ণগড় ব্লকে করোনা আক্রান্ত এলাকাগুলোতে দমকল এনে স্যানিটাইজ করার ব্যবস্থা করল ব্লক প্রশাসন। আর এই স্যানিটাইজ করতে গিয়ে বেলদার দেউলিতে বিক্ষোভের মুখে পড়ে দমকল ও তার সঙ্গে আসা তৃণমূল নেতৃত্ব।ঘটনায় জানা যায় কিছু  দিন আগে নারায়ণগড় ব্লকে প্রথম করোনা আক্রান্তের হদিস মিলে বাখরাবাদ অঞ্চলের বরদাইতে।তার 24 ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই উক্ত ব্লকে এলাকার বিভিন্ন স্কুলের অস্থায়ী কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে থাকা বহিরাগত পরিযায়ীদের মধ্যে 10 জনের করোনা পজেটিভ রিপোর্ট সামনে আসে।আতঙ্কিত হয়ে পড়েন এলাকাবাসীরা।এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে নানা গুজব ও গুঞ্জন।তবে প্রশাসন সদা সচেষ্ট ভাবে তা মোকাবেলার চেষ্টা করে যাচ্ছে।এরপরে সোমবার ওই এলাকায় স্কুলগুলিতে অস্থায়ী কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে দমকল এনে স্যানিটাইজ করার ব্যবস্থা করে ব্লক প্রশাসন।সেইমতো ব্লকের তিনটি স্থান হেমচন্দ্র অঞ্চলের বড়মোহনপুর হাই স্কুল,আকন্দা হাই স্কুল এর পর বেলদা থানা এলাকার দেউলিতে স্যানিটাইজ করতে যায় দমকল।

কিন্তু দমকলের সঙ্গে থাকা এক তৃণমূল নেতৃত্ব ও সেই সঙ্গে এলাকার মূল আক্রান্ত স্থানে না গিয়ে দমকল স্যানিটাইজ করছে দেখে বাধা দেন বিজেপির পঞ্চায়েত সদস্য ও কিছু এলাকাবাসী।তাদের দাবি মূল আক্রান্ত এলাকায় গিয়ে দমকলকে স্যানিটাইজ করতে হবে।কিন্তু দমকলের গাড়ি ওই অঞ্চল পর্যন্ত না যাওয়ায় বাইরে থেকে তারা যতটা সম্ভব তাই করছিল।এছাড়াও বিক্ষুব্ধরা এবং সেই সঙ্গে বিজেপি নেতৃত্ব জানান ওই দমকলের সঙ্গে তৃণমূলের এক নেতৃত্ব এখানে হাজির হয়েছেন।যিনি একটা সময় ওই আক্রান্ত ভাইদের কাছাকাছি গিয়েছিলেন।

যেটা এলাকাবাসীরা নজর করেছিল।তাই উনাকে নিয়েও ব্যক্তিগতভাবে বহু মানুষের আপত্তি ছিল।তারা আমাকে জানিয়ে ছিলেন।আমরা এখন চাইছি করোনা মোকাবেলার জন্য সম্পূর্ণ রাজনীতি বাদ দিয়ে কোন নেতৃত্ব না পাঠিয়ে এলাকায় যেভাবে যা কিছু করা প্রয়োজন করা হোক।এলাকাবাসীরা সর্বতোভাবে তার সহযোগিতা করবেন।এবং যারা সত্যিকারে ওই আক্রান্তদের সংস্পর্শে গেছেন তাদেরকেও করেন্টাইন করা হোক।যদিও এই বিষয়ে শাসক দল ও ব্লকের বিধায়ক প্রতিনিধি শেখ কাউসার আলীর বক্তব্য-“আমরা এলাকাবাসীদের সুস্থতার কথা ভেবে আক্রান্ত এলাকাগুলোতে ব্লক প্রশাসনকে জানিয়ে দমকল দিয়ে স্যানিটাইজ করার ব্যবস্থা করেছি।তাছাড়া যারা অভিযোগ করেছেন আক্রান্তদের সংস্পর্শে যারা গেছিলেন তাদেরকে করেন্টাইন করার সেক্ষেত্রে বলব তাদের কোন করোনা উপসর্গ নেই।যদি তাদের সত্যিকারে কোন প্রয়োজন হয় অবশ্যই ব্লকের স্বাস্থ্য দপ্তরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা রয়েছে।এবং ব্লকের স্বাস্থ্য দপ্তর সেদিকে নজর রেখেছেন।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট