সল্টলেকের বিকাশ ভবনের সামনে আন্দোলনে শামিল টিচার্স সেলের সদস্যরা


মঙ্গলবার,১৬/০৬/২০২০
399

লকডাউনের আবহে প্রাইভেট স্কুলগুলিতে নিয়ম নীতি না মেনে যথেচ্ছভাবে ফি বৃদ্ধি করা হচ্ছে। টিউশন ফি ছাড়া যাতে অন্যান্য কোনো ফি না নেয় সেই ব্যাপারে প্রাইভেট স্কুলগুলিতে অবিলম্বে সরকারী নজরদারি চালু করতে হবে। এই দাবিতে আন্দোলনে নামল বিজেপির টিচার্স সেল। সল্টলেকের বিকাশ ভবনের সামনে এদিন আন্দোলনে শামিল হয়েছিলেন টিচার্স সেলের সদস্যরা। উপস্থিত ছিলেন অভিভাবকরাও। রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু এবং লকেট চট্টোপাধ্যায় এদিনের কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন। এই আন্দোলন থেকে দাবি জানানো হয়,

চাল ও আলু বাদ দিয়ে মিডডে মিলের বরাদ্দ প্রাপ্য অর্থ থেকে ছাত্র-ছাত্রীরা বঞ্চিত হচ্ছে, প্রাপ্য বরাদ্দের অর্ধেকও পাচ্ছে না, এই lockdown পরিস্থিতিতে যা খুবই প্রয়োজন ছিল। অবিলম্বে ছাত্র-ছাত্রীদের এই বঞ্চনা দূর করে উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

নিয়ম নীতি না মেনে অন্যায়ভাবে শিক্ষকদের দূরে বদলি করে দেওয়া হচ্ছে। অবিলম্বে এই নীতি বহির্ভূত বদলি প্রক্রিয়া বন্ধ করে বদলি প্রাপ্ত শিক্ষকদের যত শীঘ্র সম্ভব নিজ বিদ্যালয়ে ফিরিয়ে আনতে হবে। এছাড়াও লডাউনের সময় নিয়ম না মেনে ছাত্র-ছাত্রীদের মিডডে মিলের চাল ও বিতরণ করা হচ্ছে এই মিথ্যা অভিযোগে দুইজন (একজন পদ্মশ্রী প্রাপ্ত) প্রধান শিক্ষককে অন্যায়ভাবে বদলি করা হয়েছে। ভুলবশত বদলি ঘোষণাসহ, তাদের অবিলম্বে নিজ বিদ্যালয়ে ফিরিয়ে আনতে হবে।

অনশন, আন্দোলনরত পার্শ্বশিক্ষক, SSK, MSK এবং ভোকেশনাল শিক্ষকদের রাজ্য সরকারী প্রতিশ্রুতি মতো, বেতন কাঠামো অবিলম্বে চালু করতে হবে ( মার্চের মধ্যে প্রতিশ্রুত ছিল)। এছাড়াও প্রাথমিক, মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষকদের কেন্দ্রীয় হারে অবিলম্বে PRT, TGT এবং PGT স্কেল চালু করতে হবে।

SSC পরীক্ষার্থীদের অনশন আন্দোলন প্রত্যাহারের সময় সরকারের প্রতিশ্রুত কথা অনুসারে অবিলম্বে উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। সেই সাথে অবিলম্বে স্বচ্ছ ভাবে প্রাথমিক, মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা এবং নিয়োগ নিয়মিতভাবে চালু করতে হবে।

এই সকল দাবিতে বিকাশ ভবনের কাছে বিধানচন্দ্র রায়ের মূর্তির কাছে social distance মেনে অবস্থান করা হয়, তারপর শিক্ষামন্ত্রীর কাছে দাবিপত্র পেশ করা হয়।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট