বৃহস্পতিবার বনধ সমর্থনকারী বাম কর্মীরা কার্যত দাপট দেখালো উলুবেড়িয়া শহর এলাকায়


বৃহস্পতিবার,২৬/১১/২০২০
528

হাওড়া, উলুবেড়িয়া: উলুবেড়িয়া শহরে বনধের বিরোধীতা করে তৃণমূল কংগ্রেস সরাসরি মাঠে না নামায় বৃহস্পতিবার বনধ সমর্থনকারী বাম কর্মীরা কার্যত দাপট দেখালো উলুবেড়িয়া শহর এলাকায়।এদিন হাজার খানেক বনধ সমর্থককারী জড়ো হয়ে শ্লোগান দিতে দিতে মিছিল করে কালীবাড়ী থেকে উলুবেড়িয়া উড়ালপুলে এসে পৌঁছায়।পথে থাকা বাইক টোটো চালককে চমকে চাকার হাওয়া খুলে দেয় ।খোলা দোকানে হুমকি দিয়ে দোকান বনধ করতে বাধ্য করে ।বাম সমর্থকদের রক্ত চক্ষুর কাছে কার্যত আত্মসমর্থন করে ব্যবসায়ীরা। উলুবেড়িয়া রেল উড়ালপুলের নিচে রেল লাইনের উপর বসে পড়ে বাম কর্মী সমর্থকরা।অবরোধ করে বেশ কিছুক্ষণ।দক্ষিণ পূর্ব রেল শাখার রেল চলাচল বেশ কিছুক্ষণ অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। সেখান থেকে মিছিল করে নিমদিঘি মোড়ে ১৬ নং জাতীয় সড়কের উপর বসে পড়ে বাম কর্মী সমর্থকরা। সেখান বেশ কিছুক্ষণ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের নীতির বিরুদ্ধে। অবরোধের জেরে দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয় ১৬ নং জাতীয় সড়কে। ঘটনাস্থলে উলুবেড়িয়া থানার বিশাল পুলিশ অবরোধকারীদের বুঝিয়ে অবরোধ তুলে দেয়।এদিন সকাল থেকেই গ্রামীণ হাওড়ার সমস্ত রুটের সরকারি-বেসরকারি যান চলাচল বন্ধ থাকে। আমতা বাস স্ট্যান্ড থেকে কোন সরকারি বেসরকারি বাস চলাচল করেনি এদিন। সকাল থেকেই মোড়ে মোড়ে যাত্রীরা দাঁড়িয়ে থাকলেও বাস মেলেনি।সমস্যায় পড়তে হয়েছে বহু নিত্যযাত্রীদের। সকাল থেকেই আমতা এলাকায় দোকানপাট ছিল বন্ধ।

গ্রামীণ হাওড়ার সমস্ত জায়গায় প্রত্যেকটি মোড়ে মোড়ে পুলিশ মোতায়েন ছিল। একই চিত্র বাগনানেও সকাল থেকেই এদিন বাগনানে কোন সরকারি বেসরকারি বাস পথে নামেনি। দোকানপাট বন্ধ ছিল। ধর্মঘটের প্রভাব পড়ে ব্যাঙ্কেও আমতা, জয়পুর,বাগনান সর্বত্র একই চিত্র।

বিজ্ঞাপন

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট