শান্তিনিকেতনের শতবার্ষিকী অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি মুখ্যমন্ত্রীকে, দাবি ব্রাত্যর


বৃহস্পতিবার,২৪/১২/২০২০
398

বাংলাকে পদানত করে রাখার অপপ্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে বিজেপি সরকার। শান্ত বাংলাকে অশান্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে। মিথ্যা ভাষণ দিয়ে অপমান করা হচ্ছে রবীন্দ্রনাথকেও। তৃণমূল ভবনে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে থেকে এই ভাষাতেই বিজেপিকে আক্রমণ করলেন তৃণমূল নেতা ব্রাত্য বসু।

পশ্চিমবঙ্গের পরিবেশকে নষ্ট করছে বিজেপি। বারবার তাদের মুখে এনকাউন্টারের কথা শোনা যাচ্ছে। কখনো বিজেপি নেতারা দাঙ্গার কথা বলছে, কখনো বদলা নেওয়ার কথা বলছে বা গাড়িতে পিষে মেরে ফেলার হুঁশিয়ারি দিচ্ছে। তৃণমূল ভবনে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে থেকে বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হলেন দলের মুখপাত্র তথা রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু। বিজেপি নেতাদের উদ্দেশ্য করে ব্রাত্য বসু বলেন, শান্তির রাজ্যে অশান্তির বাতাবরণ তৈরি করবেন না। বাইরে থেকে লোক এনে প্ররোচনা ছড়াবেন না।

শান্তিনিকেতনের শতবার্ষিকী অনুষ্ঠান উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ভাষণকে মিথ্যাভাষণ বলে উল্লেখ করেন ব্রাত্য বসু। রাজ্যের এই মন্ত্রী বলেন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে অপমান করা হয়েছে, বাংলাকে অপমান করেছেন প্রধানমন্ত্রী। শান্তিনিকেতনের শতবার্ষিকী অনুষ্ঠানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি বলেও এদিন স্পষ্ট জানিয়ে দেন তিনি।

স্বাধীনতা সংগ্রামের কথা বলতে গিয়ে দিল্লি কিংবা লাহোর বিশ্ববিদ্যালয়ের কথা বললেও প্রধানমন্ত্রী একবারের জন্যও ভারতের প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম মুখে আনেনি। বাংলাকে সবসময়ই পদানত করে রাখার অপপ্রয়াস বিজেপি সরকার চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ তোলেন ব্রাত্য বসু।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট