কোস্টাল ট্রেকে সাত বাঙালির অভিযান। অভিনন্দন জানালেন মন্ত্রী লক্ষ্মীরতন


সোমবার,০৪/০১/২০২১
678

পেশা এদের ভিন্ন। কিন্তু নেশা এদের নতুন কিছু করার তাগিদ। সেই নেশা থেকেই এরা প্রতিবার কোস্টাল ট্রেক থেকে শুরু করে বিভিন্ন অভিযানে সামিল হন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বহু দুর্গম পথ এরা পাড়ি দেন। ২০২১ এ হাওড়া অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টস অ্যাসোসিয়েশনের সাত সদস্য পায়ে হেঁটে পাড়ি দেবেন অন্ধ্র-ওড়িশা উপকূল কালিঙ্গপটনম থেকে ভাইজাক পর্যন্ত প্রায় ১০০ কিলোমিটার রাস্তা। যা সমুদ্র সৈকত ধরে পাড়ি দেবেন এরা। রাজ্যের ক্রীড়া রাষ্ট্রমন্ত্রী লক্ষ্মীরতন শুক্লা এদের হাতে দেশের জাতীয় পতাকা ও ক্লাবের পতাকা তুলে দিয়ে অভিযানের জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। জানুয়ারির ৬ তারিখ সাতজনের এই দল পায়ে হেঁটে পাড়ি দেবেন কালিঙ্গপটনম থেকে ভাইজাক। লক্ষ্মীরতন এদের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি কথা দেন পরের অভিযানে এদের সঙ্গে তিনি নিজেও পা মেলাতে চান। এই কোস্টাল ট্রেক সম্পর্কে দলের সদস্য দেবাশীষ চক্রবর্তী বলেন, “উজ্জ্বল দাস, তমোঘ্ন দাস, দেবাশিস ভট্টাচার্য, শ্যামল মারিক, সঞ্জীব দাস সহ মোট ৭ জন আমরা যাচ্ছি। ৫ তারিখ রাতে শালিমার থেকে ট্রেনপথে যাত্রা শুরু করব। এরপর শিকাকুলাম পৌঁছানো হবে। সেখান থেকে প্রায় ৪০ কিমি রাস্তা গাড়িতে যাওয়া হবে। এরপর কলিঙ্গপটনম থেকে পাঁচদিনের হাঁটা পথে অভিযান শুরু হবে। ১১ তারিখ ভাইজাক পৌঁছানো হবে। ফেরা হবে ১৩ তারিখে।

এর আগে এতো বড় রুটে ( প্রায় ১০০ কিমি. ) অভিযান সম্ভবত হয়নি। অনেকেই শর্ট রুটে অভিযান করেছেন। মন্ত্রী লক্ষ্মীরতন শুক্লা রবিবার আমাদের হাতে জাতীয় পতাকা ও ক্লাবের পতাকা তুলে দিয়ে আমাদের উৎসাহিত করেছেন। আগাম শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। আমরা প্রতি বছর নতুন কোনও না কোনও অভিযান করি। এবার আমাদের লক্ষ্য পাঁচদিন পাঁচটি গ্রামে পৌঁছে সেখানে কোভিড সচেতনতা ক্যাম্প করা। সেখানে গ্রামের মানুষ থেকে শুরু করে স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের হাতে মাস্ক তুলে দিয়ে সচেতনতার কাজ করা হবে।”

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট