দিল্লি নেতৃত্বের ‘পলিটিক্স ট্যুরিজম’ নিয়ে কেন কটাক্ষ করলেন বিমান ?


রবিবার,১০/০১/২০২১
305

আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের আগে দিল্লি থেকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এবং নেতাদের এরাজ্যে প্রচারে আগমন নিয়ে এবার তীব্র কটাক্ষ করলেন বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান বিমান বসু। রবিবার সকালে তিনি হাওড়ার মন্দিরতলা থেকে চ্যাটার্জিহাট পর্যন্ত এক পদযাত্রায় অংশ নিয়ে তিনি একথা বলেন। বিমান বসু বলেন, আগে একটা কথা ছিল রিলিফ ট্যুরিজম। আর এখন যেটা হচ্ছে সেটাকে বলা যায় পলিটিক্স ট্যুরিজম। রাজ্যে যেভাবে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা, মন্ত্রী এবং বিধায়করা দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করছে তা নিয়ে কটাক্ষ করে তিনি বলেন বিজেপি এবং তৃণমূলের মধ্যে আগে থেকেই বোঝাপড়া রয়েছে। তাই তারা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে এরাজ্যে কংগ্রেসের সঙ্গে বামেদের ২৯৪টি আসনেই বোঝাপড়া হবে বলে এদিন বিমানবাবু জানান। এদিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিমান বসু বলেন, “অতীতে একটা কথা চালু হয়েছিল রিলিফ ট্যুরিজম। এখন একটা কথা চালু হচ্ছে পলিটিক্স ট্যুরিজম। পলিটিক্স ট্যুরিজম যদি হয় তাহলে আরও অনেকে আসবে। আর তাদের যে রাজনৈতিক দর্শন সেটা প্রচার করার জন্য তারা বারবার আসবে। তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির মধ্যে একটা বোঝাপড়া ছিল। তারা সবসময় বোঝাপড়া করে চলেছে। তারই ফলশ্রুতি হচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস থেকে বিজেপিতে আসছে। আমরা এখনও কংগ্রেসের সঙ্গে আসন নিয়ে আলোচনা করিনি। আন্দোলন নিয়ে আমরা আলোচনা করছি। এরপর আসন নিয়ে আমরা আলোচনা করবো। ২৯৪টি আসনেই আমরা বোঝাপড়া করতে চাই।” উল্লেখ্য, এদিন হাওড়ার চ্যাটার্জিহাটে এসএফআই প্রাক্তনী আয়োজিত এক স্বেচ্ছা রক্তদান শিবিরে আসেন বিমান বসু। মন্দিরতলা থেকে হুড খোলা জিপে র‍্যালি করে মন্দিরতলা থেকে চ্যাটার্জিহাট আসেন তিনি।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট