বিজেপিকে ভাষা সন্ত্রাস এর আমদানিকারক বলে কটাক্ষ করলেন তৃণমূলের মহাসচিব


বুধবার,২০/০১/২০২১
704

কার্ত্তিক গুহ ঝাড়গ্রাম :– জঙ্গলমহল উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসে বিজেপিকে ভাষা সন্ত্রাস এর আমদানিকারক বলে কটাক্ষ করলেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় তিনি বলেন , ভাষা সন্ত্রাস আমদানিকারক বিজেপি । পুঁতে দেবো , বিধবা করে দেবো , হাত ভেঙে দেবো , বাড়ি থেকে বেরোতে দেবো না , এটা কোন গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার মধ্যে পড়ে না । এই যে শব্দসন্ত্রাস চলছে এটা কোন ভাবে গণতন্ত্রের জন্য স্বাস্থ্যকর নয় । আমাদের রাজনৈতিক বিবাদ থাকতে পারে , রাজনৈতিক দল হিসেবে আলাদা আলাদা পদ থাকতে পারে । কিন্তু বিজেপি যে ভাবে এখানে ভাষাসন্ত্রাস বা শব্দসন্ত্রাস আমদানি করেছে । তা মোটেই গণতন্ত্রের জন্য স্বাস্থ্যকর নয় ।

পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন বিষয়ক দপ্তর ও পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন পর্ষদের উদ্যোগে প্রতি বছরের ন্যায় এবছরও শুরু হচ্ছে জঙ্গলমহল উৎসব। বুধবার ২০ জানুয়ারি থেকে ২৭শে জানুয়ারি পর্যন্ত  আট দিন ধরে এই জঙ্গলমহল উৎসব চলবে । এবছর জঙ্গলমহল উৎসব ৭ বছরে পদার্পণ করল । ঝাড়গ্রাম শহরের ননীবালা বিদ্যালয়ের হোস্টেল মাঠ প্রাঙ্গণে এই জঙ্গলমহল উৎসব অনুষ্ঠিত হয় । অনুষ্ঠানে জঙ্গলমহলের মুলবাসী আদিবাসী সম্প্রদায়ের চাং, রণপা, পাতা, পাইক, ভাদু, ঝুমুর , বাউল, টুসু গান প্রভৃতি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে । জঙ্গলমহল প্রাঙ্গনে রয়েছে ঝাড়গ্রাম , পশ্চিম মেদিনীপুর , বাঁকুড়া , পুরুলিয়া জেলা ও  পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন বিধায়ক দপ্তর এবং পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন পর্ষদের সুদৃশ্য প্যাভিলিয়ন, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের প্রতি দপ্তরের ৪২  টি প্রদর্শনী স্টল ও জঙ্গলমহলের হস্তশিল্প সামগ্রীর প্রদর্শন ও বিক্রয়ের জন্য কারিগরী হাট রয়েছে । পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন পর্ষদ সূত্রে জানা যায় এবছর জঙ্গলমহল উৎসব এর জন্য প্রায় চার কোটি টাকার বাজেট রয়েছে ।

মূলত জঙ্গলমহলের শিল্প ও সংস্কৃতিকে পুনরুজ্জীবিত করার এবং সকলের কাছে তুলে ধরার জন্য জঙ্গলমহল উৎসব  । জঙ্গলমহল উৎসব পুরুলিয়া বাঁকুড়া পশ্চিম মেদিনীপুর ঝাড়গ্রাম এই চার জেলার লোকো শিল্পীরা অংশগ্রহণ করেন  । পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন পর্ষদ সূত্রে জানা যায়, এবছর জঙ্গলমহল উৎসবে ৭৫০ টি লোকশিল্পীর দল অংশগ্রহণ করছে ।

এদিন উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন পর্ষদের ভাইস চেয়ারম্যান দুলাল মুর্মু , ঝাড়গ্রাম জেলা পরিষদের সভাধিপতি মাধবী বিশ্বাস , গোপীবল্লভপুরের বিধায়ক চূড়ামনি মাহাত , পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন পর্ষদের সচিব সুব্রত বিশ্বাস , ডিপিএসসি এর চেয়ারম্যান বিরবাহা সরেন টুডু , আদিবাসী শিক্ষা দপ্তরের চেয়ারম্যান রবিন টুডু , ঝাড়গ্রামের জেলা শাসক আয়েশা রানী এ , ঝাড়গ্রামের পুলিশ সুপার ইন্দ্রা মুখোপাধ্যায় , সমাজসেবী ছত্রধর মাহাত , বিনপুরের বিধায়ক খগেন্দ্রানাথ হেমব্রম সহ একাধিক অধকারিক ।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট