গৃহপ্রবেশের অপেক্ষায় চা-সুন্দরী


বৃহস্পতিবার,১৬/১২/২০২১
299

বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, আলিপুরদুয়ার : চা-শ্রমিকদের নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাবনার ফসল চা-সুন্দরী প্রকল্প। বন্ধ চা-বাগানের শ্রমিকদের মাথার ওপরে ছাদ সুনিশ্চিত করতেই এই ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আলিপুরদুয়ার জেলার বিভিন্ন বন্ধ বাগানের শ্রমিকদের জন্য তৈরি হয়েছে স্বপ্নের আবাসন প্রকল্প ‘চা-সুন্দরী’। মোট ২,৯৬৯টি শ্রমিক আবাস তুলে দেওয়া হবে চা-শ্রমিক পরিবারের হাতে। প্রথম পর্বে জেলার কালচিনি ব্লকের তোর্সা ও মাদারিহাট-বীরপাড়া ব্লকের মুজনাই, লঙ্কাপাড়া এবং ঢেকলাপাড়া চা-বাগানে ওই প্রকল্পের কাজ হয়েছে। পরবর্তীতে আরও বেশ কিছু চা-বাগানকে ওই প্রকল্পের আওতায় আনার পরিকল্পনা রয়েছে রাজ্য সরকারের। চা-সুন্দরী প্রকল্পের ওই শ্রমিক আবাসগুলিতে থাকছে দু’টি শোয়ার ঘর, একটি রান্না ঘর, শৌচালয় ও সামনে একটি বারান্দা। এ ছাড়াও বাড়ির পিছনে থাকছে গবাদিপশু প্রতিপালন ও কিচেন গার্ডেনের জায়গা। আবাসনগুলির রঙের কাজ ইতিমধ্যেই শেষ হয়েছে। দ্রুতগতিতে শেষ করা হচ্ছে পানীয় জলের সংযোগ, বিদ্যুদয়ন ও সৌন্দর্যায়নের কাজ। এ-ছাড়াও প্রকল্প এলাকার রাস্তার কাজও চলছে জোরকদমে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট