না ফেরার দেশে গেলেন পণ্ডিত বিরজু মহারাজ


সোমবার,১৭/০১/২০২২
157

কিংবদন্তী কত্থক শিল্পী পণ্ডিত বিরজু মহারাজ প্রয়াত হলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৮৩ বছর। গতকাল রাতে দিল্লির বাড়িতেই হৃদরোগে আক্রান্ত হন কিংবদন্তি। সোশ্যাল মিডিয়ায় শিল্পীর মৃত্যুর খবর দেন তাঁর নাতি। ১৯৩৮ সালে লখনউতে জন্ম পণ্ডিত বিরজু মহারাজের। পণ্ডিত বিরজু মহারাজের আসল নাম ছিলো পণ্ডিত বৃজমোহন মিশ্র। কত্থক শিল্পীর পাশাপাশি শাস্ত্রীয় সঙ্গীতেরও দিকপাল ছিলেন। ১৯৮৩ সালে তাঁকে পদ্মবিভূষণে সম্মানিত করে ভারত সরকার। তাঁর বাবা ও গুরু অচ্ছন মহারাজ, দুই কাকা শম্ভু মহারাজ ও লাচ্চু মহারাজও প্রখ্যাত কত্থক-শিল্পী। সত্তর দশকের মাঝামাঝি সত্যজিৎ রায়ের ‘শতরঞ্জ কি খিলাড়ি’-র কোরিওগ্রাফি তিনি করেন। ২০১২ সালে বিশ্বরূপম ছবিতে কোরিওগ্রাফির জন্য তাঁকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে মহারাজকে সম্মানিত করা হয়।রবিশঙ্কর তাঁর নাচ দেখে বলেছিলেন, ‘তুমি তো লয়ের পুতুল’! একাধারে নাচ, তবলা এবং কণ্ঠসঙ্গীতে সমান পারদর্শী ছিলেন বিরজু। তিনি অসাধারণ ছবিও আঁকতেন। কিংবদন্তি দেশ-বিদেশে বহু অনুষ্ঠান করেছেন। রয়েছে প্রচুর ছাত্রছাত্রী। নিজের শিল্পকর্ম এবং শিক্ষার মধ্যে দিয়েই বিরজু অমরত্ব লাভ করবেন। কিংবদন্তী কত্থক শিল্পীর মৃত্যুতে নৃত্যজগতে নক্ষত্র পতন ঘটলো। কিংবদন্তী কত্থক শিল্পী পণ্ডিত বিরজু মহারাজের নীতিতে মৃত্যুর জগতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট