মালবাজারে মাল নদীতে দুর্গা প্রতিমা নিরঞ্জনে গিয়ে হড়পা বান


বৃহস্পতিবার,০৬/১০/২০২২
776

জলপাইগুড়ির মালবাজারে মাল নদীতে দুর্গা প্রতিমা নিরঞ্জনে গিয়ে হড়পা বানে অন্ততঃ সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। প্রবল জলের স্রোতে ভেসে গেছেন অনেকেই। স্থানীয় সূত্রের খবর, রাত সাড়ে আটটা নাগাদ নদীতে ভাসান চলাকালীন হড়পা বাণ আসে। সেই সময় বহু মানুষ, নদীর চরে দাঁড়িয়ে ছিলেন। বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। পাহাড়ে বৃষ্টির দরুণ হঠাৎ করে মাল নদীতে জলস্তর বেড়ে যায় বলে অনুমান করা হচ্ছে। প্রবল জলের স্রোত এবং রাতের অন্ধকারে, উদ্ধারকাজ কিছুটা ব্যহত হয়। অন্ততঃ ১১’জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রাজ্য সরকার, মালবাজারে হড়পা বানে দুর্ঘটনায় নিখোঁজদের সন্ধানে সকাল থেকেই তল্লাশি অভিযান আরও জোরদার করার নির্দেশ দিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ইতিমধ্যেই দুর্ঘটনার বিষয়ে জেলা প্রশাসনের আধিকারিকদের কাছ থেকে খোঁজখবর নিয়েছেন বলে নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে। বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী এবং জেলা প্রশাসনকে উদ্ধার অভিযান জোরদার করার কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি আহতদের দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা শুরু করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে খবর। দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবার এবং আহতদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার বিষয়টি রাজ্য সরকার ভাবনা চিন্তা করছে বলে জানা গেছে।

রাজ্য সরকার উত্তরবঙ্গের মালবাজারে গতরাতে মাল নদীতে প্রতিমা বিসর্জনের সময় হড়পা বানে দুর্ঘটনায় মৃতদের পরিবারকে এককালীন ২ লক্ষ এবং আহতদের পঞ্চাশ হাজার টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি আজ এক টুইটারে এই কথা জানিয়ে ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এই ঘটনায় এখনো পর্যন্ত আটজনের মৃত্যু হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন। আহত ১৩ জনকে মাল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জাতীয় এবং রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী নদীতে তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে। অসামরিক প্রতিরক্ষা দপ্তরের স্বেচ্ছাসেবক এবং স্থানীয় যুবকরা ৭০ জনকে উদ্ধার করেছে। যাবতীয় তথ্য সহযোগিতার জন্য দুটি হেল্পলাইন নম্বর চালু করা হয়েছে। নম্বর দুটি হল ০৩৫৬১ -২৩০৭৮০, ৯০৭৩৯৩৬৮১৫।

Loading...
https://www.banglaexpress.in/ Ocean code:

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট