চাঁদে গবেষণা স্টেশন খুলতে চায় চিন


রবিবার,১৬/০৪/২০২৩
9411

চাঁদে গবেষণা স্টেশন তৈরি করতে চায় চিন। চাঁদের মাটিতে দীর্ঘ সময়ের জন্য নভোচারীদের রেখে দেওয়ার চিন্তাভাবনা করছেন চীনের মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। চীনের উহান শহরে এক সম্মেলনে ১০০ জনের বেশি চীনা বিজ্ঞানী, গবেষক ও মহাকাশ সংস্থার প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে এই উচ্চাভিলাষী পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

চীন চাঁদের মাটি দিয়ে চাঁদেই ঘাঁটি গড়া শুরু করতে চায় । এমনই লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছেন তাদের মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। সম্প্রতি চীনের উহান শহরে এক সম্মেলনে যোগ দেন ১০০ জনের বেশি চীনা বিজ্ঞানী, গবেষক ও মহাকাশ সংস্থার প্রতিনিধিরা। সেই সম্মেলনে চাঁদে কীভাবে অবকাঠামো তৈরি করা হবে তা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। তাদের এই উচ্চাভিলাষী পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ দ্রুত শুরু হতে পারে । চাইনিজ একাডেমি অব ইঞ্জিনিয়ারিং- এর বিশেষজ্ঞ ডিং লাইয়ুন বলেছেন, একদল গবেষক ‘চায়নিজ সুপারম্যাসনস’ নামের একটি রোবট তৈরি করছে, যার কাজ হবে চাঁদের মাটি দিয়ে ইট তৈরি করা। চাইনিজ একাডেমি অব ইঞ্জিনিয়ারিং- এর বিশেষজ্ঞ ডিং লাইয়ুন বলেছেন, একদল গবেষক ‘চায়নিজ সুপারম্যাসনস’ নামের একটি রোবট তৈরি করছে, যার কাজ হবে চাঁদের মাটি দিয়ে ইট তৈরি করা।তিনি আরও বলেন, “চাঁদের রহস্য উদঘাটনে দীর্ঘ মেয়াদে অনুসন্ধান কাজ চালানোর জন্য সেখানে বসতি গড়া দরকার। ভবিষ্যতে নিশ্চয়ই এটি উপলব্ধি করা সম্ভব হবে।” ২০২৮ সালের দিকে চ্যাং’ই-৮ নামের একটি চন্দ্রাভিযান পরিচালনা করবে চীন। সে অভিযানে চাঁদের মাটি দিয়ে ইট তৈরির জন্য বানানো রোবটটি পাঠানো হবে।তার আগে ২০২৫ সালের দিকে চাঁদের দূরবর্তী অংশ থেকে প্রথম মাটির নমুনা সংগ্রহের চেষ্টা চালাবে দেশটি। এর আগে ২০২০ সালে চ্যাং’ই-৫ মিশনে চাঁদের নিকটবর্তী অংশ থেকে প্রথম মাটির নমুনা সংগ্রহ করে পৃথিবীতে এনেছিল চীন। চীনের মহাকাশ বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, চাঁদে একবার গবেষণা স্টেশন তৈরি করা হয়ে গেলে সেখানে দীর্ঘ সময়ের জন্য নভোচারীদের রেখে দেওয়া সম্ভব হবে।

Loading...
https://www.banglaexpress.in/ Ocean code:

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট