আগামী ৩ মাসে পুলিশের শূণ্যপদে নিয়োগ, বড় ঘোষনা মমতার


বৃহস্পতিবার,১১/০৫/২০২৩
940

রাজ্য পুলিশের সব নিয়োগ সম্পূর্ণ করতে হবে আগামী তিন মাসের মধ্যে। নবান্নে কড়া নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একনজরে দেখে নেওয়া যাক নবান্নে কী কী বললেন মুখ্যমন্ত্রী: তিন মাসে পুলিশের সব শূন্যপদ পূরণ ,নবান্নে বড় ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। দ্রুত শূন্যপদ পূরণ করাই লক্ষ্য সরকারের। ট্রেনিং-এর সময় কমানোর প্রস্তাব দিয়েছেন। সমস্ত ক্ষেত্রে শূন্যপদ পূরণে জোর সরকারের। দ্রুত পূরণ করার লক্ষ্য নিয়েছে প্রশাসন।

সবার আগে নজর দেওয়া হয়েছে পুলিশে। তিন মাসের মধ্যে পুলিশের শূন্যপদে নিয়োগ। সব নিয়োগ সম্পূর্ণ করার নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর। মুখ্যমন্ত্রীর প্রস্তাব, ৬ মাসের ট্রেনিং নয়। সাতদিন ট্রেনিং দিয়ে থানায় পাঠানো হোক। পরে মাসে সাতদিন করে ট্রেনিং দিতে হবে। ২১ দিন কাজ করিয়ে বাকি সাতদিন ট্রেনিং। ট্রেনিংয়ে যে দীর্ঘ সময় নষ্ট হয়, তা আর হবে না। থানায় থানায় পুলিশের অভাব পূরণ হয়ে যাবে। ‘উৎকর্ষ বাংলা’ পর্যালোচনা সভা নবান্নে অনুষ্ঠিত হয়। রাজ্য কর্মসংস্থানে আরও একাধিক প্রস্তাব দেওয়া হয়। প্রস্তাব দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যে চাকরি নেই বলে সরব বিরোধীরা। বারবার আক্রমণ করে সরকারকে। কিন্তু, সরকারের লক্ষ্য কর্মসংস্থান। সরকারি-বেসরকারি সব ক্ষেত্রে কর্মসংস্থান। বেকারদের জন্য পদক্ষেপ করল সরকার। পুলিশে চাকরি পেতে চলেছেন বেকাররা।কর্মসংস্থানমুখী প্রয়াস রাজ রাজ্য সরকারের।

রাজ্যে এখন থেকে সিকিউরিটি এজেন্সি গুলোতে নিরাপত্তা কর্মী নিয়োগ করতে গেলে রাজ্য পুলিশের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে। এজেন্সি চালাতে গেলে পুলিশের কথা শুনে চলতে হবে নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। নবান্নে বৃহস্পতিবার রিভিউ মিটিংয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘সিকিউরিটি ক্ষেত্রে প্রচুর লোক নেওয়া হচ্ছে। সিকিউরিটি এজেন্সিগুলো এই কাজ করছে।’ তবে এই বিষয়ে যে পুলিশের কোনও নজরদারি থাকছে না, সেই দিকটি নিয়েও সতর্ক করেন মমতা। তিনি উপস্থিত সকলের মধ্যে বিশেষ কয়েকজনকে উল্লেখ করে বলেন, ‘স্বরাষ্ট্র সচিব, ডিজিপি, ডিজি সিকিউরিটি, সিপি, এডিজি আইন শৃঙ্খলা– আপনারা এই এজেন্সিগুলোর সঙ্গে বৈঠক করুন।’ এদের সম্পর্কে দ্রুত বিশদ তথ্য ও তালিকা তৈরি করতে নির্দেশ দেন।
ডাক্তারিতেও ৩ বছরের ডিপ্লোমা কোর্সের প্রস্তাব মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের, এক সপ্তাহের মধ্যে বিশেষজ্ঞ কমিটি গড়ার নির্দেশ রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরকে। পঠন পাঠনের সিলেবাস থেকে শিক্ষা পদ্ধতি সব ঠিক করবেন বিশেষজ্ঞ কমিটি।

Loading...
https://www.banglaexpress.in/ Ocean code:

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট