কড়া চ্যালেঞ্জ শুভেন্দু ও মোদিকে , নন্দীগ্রামের মাটি, তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি: অভিষেক


মঙ্গলবার,০৬/০৬/২০২৩
630

নন্দীগ্রামে জনজোয়ারে ভাসলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় দীর্ঘ পদযাত্রা করলেন। বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর গড়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় জানান দিলেন তৃণমূলের জনসমর্থনের জনস্রোত। হাজার হাজার মানুষ চন্ডিপুর থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর সঙ্গে পায়ে পা মেলান। রাস্তার দুধারে তখন কাতারে কাতারে মানুষ। যে নন্দীগ্রাম রাজ্যে পালা বদলের ইতিহাস হয়ে রয়েছে সেই নন্দীগ্রামে পা রেখে অভিভূত অভিষেক। অফিসেকের উপস্থিতিতে সাধারণ মানুষের মধ্যে উন্মাদনা তুঙ্গে ছিল। অভিষেক কে দেখার জন্য মহিলারাও বেরিয়ে এসেছিলেন ঘর ছেড়ে। নন্দীগ্রাম এক ও নন্দীগ্রাম দু নম্বর ব্লকের প্রায় ২৭টি গ্রাম পঞ্চায়েতে ছুঁয়ে যায় অভিষেকের পদযাত্রা। নন্দীগ্রাম বাসস্ট্যান্ডে যখন পদযাত্রা শেষ হয় তখন রাত হয়ে গিয়েছে। মানুষের স্বতঃস্ফূর্ততা দেখে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় টুইটে লিখেছেন,
“নন্দীগ্রামের মাটি, তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি।
রাত গড়িয়ে গেলেও হাজার হাজার মানুষের যে জমায়েত আমি দেখলাম, তাতে কোনো সন্দেহ নেই, নন্দীগ্রামের আবেগ আজও রয়েছে আমাদের সঙ্গে।

পূর্ব মেদিনীপুর আন্দোলনের ভূমি। গর্বের ভূমি। এই পবিত্র ভূমিতে দাঁড়িয়ে আমি প্রতিজ্ঞা করলাম, এই মাটিকে আমি সমস্ত বিভাজনকারী শক্তি থেকে মুক্ত করবই।”
এদিন বিকেলে চন্ডিপুর থেকে নন্দীগ্রাম চলো কর্মসূচীতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় যাত্রা শুরু করেন। দীর্ঘ ১৯ কিলোমিটার রাস্তা পদযাত্রায় অংশ নেন অভিষেক। চন্ডিপুর থেকে নন্দীগ্রাম বাস স্ট্যান্ড পর্যন্ত এই পদযাত্রা কর্মসূচি হয়। ২৭ টি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা ছুঁয়ে যাবে অভিষেকের পদযাত্রা। এদিন পদযাত্রার সঙ্গে সঙ্গে জনসংযোগেও অংশ নেন অভিষেক। চায়ের দোকানে বসে চা খান। কথা বলেন সাধারন মানুষের সঙ্গে। শোনেন অভাব অভিযোগ। অভিষেককে কাছে পেয়ে সাধারণ মানুষ তারা খুলে বলেন মনের কথা। অনেকেই অভিযোগ করেন নন্দীগ্রামে লোডশেডিং করে বিজয়ী হয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। জনগণের ভোটে নির্বাচিত হননি। মানুষ তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গেই আছে। এদিনের পদযাত্রা শেষে নন্দীগ্রাম বাসস্ট্যান্ডে জনসভা করেন অভিষেক। জনসভায় ছিল উপচে পড়া ভিড়। এই জনসভা থেকে বিজেপির বিরুদ্ধে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড। চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ও বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে।

Loading...
https://www.banglaexpress.in/ Ocean code:

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট