২৪-র মার্চে রাশিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন, ফের ভোটে লড়বেন ভ্লাদিমির পুতিন


শনিবার,০৯/১২/২০২৩
2168

২০২৪ এর মার্চে রাশিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। বর্তমান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন আগামী বছরের ভোটেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চলেছেন। সে কথা নিজেই ঘোষণা করেছেন পুতিন। ২০১৮ সালের নির্বাচনে ৭৬% ভোট পেয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন পুতিন। ইউক্রেন থেকে দখলকৃত বেশ কিছু নতুন এলাকার নাগরিকরা এবার প্রথম ভোট দেবেন।
২০২৪ সালের ১৭ মার্চ রাশিয়ায় পার্লামেন্ট নির্বাচন। এই নির্বাচন ঘিরে জোরদার প্রস্তুতি চলছে রাশিয়ায়। এবারে নির্বাচনে বেশ কয়েকটি নতুন প্রদেশের জনগণ ও ভোটে অংশ নিতে চলেছেন। ইউক্রেন রাশিয়ার যুদ্ধ চলছে। ইতিমধ্যেই ইউক্রেনের থেকে দনেৎস্ক, লুহানস্ক, ঝাপোরিশিয়া ও খেরসনের বড় অংশ দখল করে নিয়েছে রাশিয়া। এই সব এলাকার বাসিন্দারা অংশ নিতে চলেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে। স্বাভাবিকভাবেই এবারের এই নির্বাচন তাই বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ হয়ে উঠেছে। ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধ বছরভর চলছে। যুদ্ধের ব্যপক প্রভাব পড়েছে রাশিয়াতেও। অগ্নিমূল্য জিনিসপত্রের দাম। দেশের জনগণের একাংশ সরকারের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ রয়েছেন। এবারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটের প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এরকম একটা রাজনৈতিক সন্ধিক্ষণে আবারো ভোটে দাঁড়ানোর ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। আর সে কথা ঘোষণা করে দিয়েছেন তিনি। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, ২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। ছ বছর অন্তর অন্তর নির্বাচন হয় রাশিয়ায়। পার্লামেন্ট নির্বাচনের মধ্য দিয়ে ২০৩০ সাল পর্যন্ত ক্ষমতা ধরে রাখতে মরিয়া ভ্লাদিমির পুতিন। অন্যদিকে বর্তমান প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে ঘুঁটি সাজাচ্ছে বিরোধীরাও। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন রাশিয়ায় আগামী বছরের নির্বাচনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হয়ে উঠবে ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ। দেশের জনগণ আড়াআড়িভাবে বিভক্ত হয়ে পড়বেন যুদ্ধের পক্ষে ও বিপক্ষে। ইউক্রেনের থেকে দখলকৃত দনেৎস্ক, লুহানস্ক, ঝাপোরিশিয়া ও খেরসনের বাসিন্দারা এবার প্রথম অংশ নেবেন নির্বাচনে। তাদের সমর্থন কোন দিকে যাবে সেটাও নির্ভর করবে নতুন প্রেসিডেন্টের ভাগ্য। এই সমস্ত এলাকা এতদিন ইউক্রেনের অধীনে ছিল। ২০১৮ সালের নির্বাচনে ৭৬% ভোট পেয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন পুতিন। ২৪ এর পার্লামেন্ট নির্বাচনে কি ফল হয় সেদিকে তাকিয়ে রাজনৈতিক মহল।

Loading...
https://www.banglaexpress.in/ Ocean code:

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট