প্রতিটি পাগড়ি পরা ব্যক্তি খালিস্তানি’, পুলিশ অফিসারকে কদর্য মন্তব্য বিজেপির, তীব্র প্রতিবাদ মুখ্যমন্ত্রীর


বুধবার,২১/০২/২০২৪
795

এক পাঞ্জাবি পুলিশ অফিসারকে খালিস্তানি বলে আক্রমণ করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এই নিয়ে সোমবার সারাদিন উত্তপ্ত থাকল বঙ্গ রাজনীতি। সন্দেশখালি ধামাখালি তে এই কদর্য মন্তব্য করেন বিরোধী দলের নেতা। রাজ্য পুলিশের এক কর্তা সেখানে ডিউটি পালন করছিলেন। রাজ্যে তরফে আইনশৃঙ্খলা জনিত কারণে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছিল ধামাখালিতে। ওই পুলিশকর্তা নেতৃত্বে সেখানে বিশাল পুলিশবাহিনী দায়িত্ব পালন করছিলেন। শুভেন্দু অধিকারী শঙ্কর ঘোষ অগ্নিমিত্রা পালে নেতৃত্বে এক প্রকার ১৪৪ ধারা ভাঙার চেষ্টা হয়। কড়া পদক্ষেপ নেন ওই পুলিশ আধিকারিক। সেই সময় বিরোধীদল নেতা, ওই পুলিশ আধিকারিককে লক্ষ্য করে খালিস্তানি বলে আক্রমণ করেন বলে অভিযোগ। সঙ্গে সঙ্গে এর তীব্র প্রতিবাদ জানান ওই পুলিশকর্তা। সেই সঙ্গে করা পদক্ষেপ নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন। মাথায় পাগড়ি বাঁধা থাকলেই তিনি খালিস্তানি হন না মনে করিয়ে দেন ওই পুলিশকর্তা। ধর্ম নিয়ে আক্রমণ করার অভিযোগ তোলেন তিনি। সেই সঙ্গে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন। উল্লেখ্য, ‘প্রতিটি পাগড়ি পরা ব্যক্তি খালিস্তানি’, সন্দেশখালিতে পুলিশ আধিকারিককে দেখে মন্তব্য বিজেপির। এই ঘটনায় তীব্র ক্ষোভপ্রকাশ করে সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ‘বিজেপি নির্লজ্জভাবে বিভাজনের রাজনীতি করছে’, অভিযোগ বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর।’সাংবিধানিক সীমানা অতিক্রম করেছে’ বলে খরা প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ‘শিখ ভাই ও বোনদের সম্মানহানির প্রচেষ্টার তীব্র নিন্দা জানাই’, সামাজিক মাধ্যমে মন্তব্য মমতার। সম্প্রীতি হানির প্রচেষ্টার প্রতিরোধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর।


এদিকে এই ঘটনার পর পর রাজ্য বিজেপি দপ্তরে বিক্ষোভ সংগঠিত করেন পাঞ্জাবী সম্প্রদায়ের মানুষজন। এই ধরনের মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করেন তাঁরা। কঠোর শাস্তির দাবি জানান তারা। এই ধরনের মন্তব্য বাংলা সম্প্রীতি বিনষ্ট করার চেষ্টা বলে মনে করছে রাজনৈতিক ওয়াকিবহাল মহলের অনেকেই।
এদিকে এই নিয়ে করা সুরে প্রতিবাদ জানিয়েছেন তৃণমূলের অন্যতম নেত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ও রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু। তৃণমূল ভবনে সাংবাদিক বৈঠক করে অভিযুক্তের কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তারা।
বিকেলে নিজের ঘাঢ় থেকে দায় ঝেড়ে ফেলার আপ্রাণ চেষ্টা চালান শুভেন্দু অধিকারী। বলেন বিজেপি কোনদিন এ ধরনের মন্তব্য করেনা। এই ধরনের কোন মন্তব্য তারা করেননি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে নম্বর বাড়াতে এই ধরনের রিপোর্ট দিয়েছেন ওই অফিসার, মন্তব্য শুভেন্দুর। বিরোধী দল নেতা বলেন দেশপ্রেম তাদের কাছে সবচেয়ে বড়।
অন্যদিকে রাজ্য পুলিশের তরফ থেকে এদিন সন্ধ্যায় সাংবাদিক বৈঠক করা হয়। আই মোতাবেক এই ঘটনার আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন পুলিশ কর্তারা।

Loading...
https://www.banglaexpress.in/ Ocean code:

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট